দুই গাছের বিয়ের অতিথি হাজার মানুষ

raj-2-20211212094342.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : রাজশাহীর খড়খড়ির শ্রী শ্রী গোপালদেব ঠাকুর মন্দির প্রাঙ্গণ যেন বিয়ে বাড়ি। বর সাজে ‘বিজয়’ এবং কনের সাজে ‘বনলতা’। অতিথিও এসেছেন হাজারখানেক। বাদ্য-বাজনার তালে মেতেছিল বিয়ে বাড়ি। যথারীতি এলো গোধূলি লগ্ন। মন্ত্র পড়ে বিয়ের আচার-আনুষ্ঠানিকতা শেষ করলেন পুরোহিত পুলক আচার্য।

তবে শনিবারের (১১ ডিসেম্বর) আয়োজিত এই বিয়ে আর সব বিয়ের মতো নয়। বর ও করে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে থাকা বট ও পাকুড় গাছ। ১৭ বছর আগে গাছ দুটি লাগানো হয়েছিল মন্দির চত্বরে।

আরও পড়ুন : লণ্ডভণ্ড যুক্তরাষ্ট্র: ৬ রাজ্যে আঘাত হানে ৩০ টর্নেডো

হিন্দু শাস্ত্রমতে, পাশাপাশি বট-পাকুড় গাছ থাকলে তাদের বিয়ে দিতে হয়। তাই রীতি মেনে মহাধুমধামে এই বিয়ে আয়োজন করা হয়। বিয়ের আগে বটের নাম রাখা হয় ‘বিজয়’ আর পাকুড় হয় ‘বনলতা’।

বিজয়ের বাবা-মা হয়েছিলেন বিধান চন্দ্র সরকার ও আরতি রানী সরকার দম্পতি। আর বনলতার বাবা-মা বিশ্বজিৎ সরকার ও কনিকা রানী সরকার দম্পতি।

মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব সরকার জানান, হিন্দুশাস্ত্রে আছে বট-পাকুড় একসঙ্গে থাকলে তাদের বিয়ে দিতে হয়। সেজন্যই এ আয়োজন। এ বিয়েতে প্রায় দেড় হাজার মানুষকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top