চট্টগ্রাম টেস্টে বিপর্যয়ে বাংলাদেশ

image-491605-1637905116.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : চট্টগ্রাম টেস্টে দ্রুত ৪ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। এ মুহূর্তে দলের হাল দুই অভিজ্ঞ ব্যাটার মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের হাতে।

আজ টস জিতে ব্যাট হাতে নেমে শুরুটা ভালো করলেও ৩৩ রানে দুই ওপেনারের বিদায়ে ব্যাকফুটে চলে যায় বাংলাদেশ দল।

প্রথম ৬ ওভারে ৬টি বাউন্ডারিতে উদ্বোধনী জুটিতে ১৯ রান আসে। এরপর থেকেই যেন দ্রুত উইকেট পতনের সেই চিরাচরিত অভ্যাসে সামিল হয় টাইগাররা।

৩৩ রানে দুই উইকেট হারানোর পর আরো মাত্র ১৪ রান যোগ করতে পারেন শান্ত-মুমিনুল জুটি।

১৫.১ ওভারে সাজিদ খানের বলে অধিনায়ক মুমিনুলকে কট বিহাইন্ডের আপিল উঠে। আম্পায়ার প্রথমে আউট না দিলে রিভিউ নেন বাবর আজন। সেই রিভিউতে সফল হন পাকিস্তান।

১৮ বলে মাত্র ৬ রানে সমাপ্তি ঘটে মুমিনুলের ইনিংসের।

মুমিনুলের আউটের পর টেকেননি শান্ত। পরের ওভারেই সাজঘরের পথে রওনা দেন তিনি।

ফাহিম আশরাফের বাউন্সারে কাট করতে গিয়ে পয়েন্টে সাজিদের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন শান্ত। ৩৬ বলে ১৪ রান করে ফেরেন শান্ত।

এর আগে বাংলাদেশ শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন শাহিন শাহ আফ্রিদি।

৫ম ওভারে আফ্রিদির ৩য় ডেলিভারিটি বাউন্সার ছিল। দ্রুত গতিতে আসা সেই বল খেলা তো দূরের কথা বলের লাইন থেকেই সরতে পারেননি সাইফ।

আরও পড়ুন :জবির উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগে বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধন

ব্যাটিংয়ের কানায় লেগে ক‍্যাচ যায় শর্ট লেগে আবিদ আলির হাতে।

তিন চারে ১২ বলে ১৪ রান করেন সাইফ। ভাঙ্গে ১৯ রানের উদ্বোধনী জুটি।

১২ বলে ১৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন সাইফ।

সাইফের বিদায়ের পর তাকে অনুসরণ করেন আরেক ওপেনার সাদমান।

৮ম ওভারে হাসান আলির শেষ বলটিতে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফিরে যান সাদমান। ওপেনার সাদমানাও ১৪ রানের বেশি করতে পারলেন না।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ১৮ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ৫৬ রান।

ব্যাট হাতে নেমেছেন মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top