শুধু বিআরটিসিতেই হাফ ভাড়া চান বাস মালিকরা

dhakapost-20211125115605.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট :  বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া চালুর প্রস্তাব দেওয়া হবে। হাফ ভাড়ার বিষয়ে আজ (বৃহস্পতিবার) বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সভায় বাস মালিকদের পক্ষে এ প্রস্তাব দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

বিআরটিএ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) বিকেল ৩টায় অংশীজনদের নিয়ে এ সভা শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। তাতে সড়ক পরিবহন মালিকদের পক্ষ থেকে প্রতিনিধিরাও অংশ নেবেন। পরিবহন মালিকদের একাধিক সংগঠনও এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সহ-সভাপতি মো. আবুল কালাম বলেন, আজ বিকেল ৩টায় বিআরটিএর প্রধান কার্যালয়ে হাফ ভাড়া নিয়ে যে সভা হবে তাতে আমরা অংশগ্রহণ করব। সেখানে আমাদের মতামত তুলে ধরব।

বাস মালিকদের একাধিক নেতা জানিয়েছেন, বেসরকারি বাসে শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ ভাড়া চালু হলে অনেকে ভুয়া পরিচয়পত্র দেখিয়ে বাসে যাতায়াত করবেন, এতে বাস মালিকদের লোকসান হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীর সংখ্যাও অনেক বেড়েছে‌। ফলে বেসরকারি বাসে হাফ ভাড়া চালু করা উচিত হবে না। আবার সরকার এ জন্য বেসরকারি বাসে কোনো ভর্তুকিও দেবে না।

আরও পড়ুন : মিরপুরে আজও পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ

রাজধানীর ১২৮টি রুটে বাস-মিনিবাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের ফলে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি চলছে। প্রথা চালু থাকলেও বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নেওয়া হচ্ছে না। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের চাপে কোনো কোনো বাস কোম্পানি হাফ ভাড়া নেওয়ার জন্য রাজি হয়েছে। ২০১৮ সালে শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক আন্দোলনেও ৯টি দাবির মধ্যে হাফ ভাড়া নেওয়ার বিষয়টি ছিল।

সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, টাস্কফোর্সের মাধ্যমে বাসে শিক্ষার্থীদের জন্য অর্ধেক ভাড়া পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে। তবে কবে করা হবে তা স্পষ্ট নয়।

তবে বাসে হাফ ভাড়ার দাবিতে রাজধানীতে প্রতিনিয়ত শিক্ষার্থীরা আন্দোলন কর্মসূচি পালন করছে। শিক্ষার্থীদের হাফপাসের দাবিকে কেন্দ্র করে বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটেছে।

একমাত্র সরকারি সড়ক পরিবহন সংস্থা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনের (বিআরটিসি) বাসেও শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নেওয়া হচ্ছে না। বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, আমাদের সরকারি বাসে হাফ ভাড়া নেওয়া হয় না। এ বিষয়ে সরকারি কোনো নির্দেশ আমাদের কাছে আসেনি। সরকার নির্দেশ দিলে আমরা বিআরটিসির বাসে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া নেব।

ডিজেলের দাম ২৩ শতাংশ বাড়ার পর গত ৭ নভেম্বর থেকে বাস ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। অতিরিক্ত ভাড়া আদায়য়ের পাশাপাশি হাফ ভাড়া নিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন রুটে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পরিবহন শ্রমিকদের বাকবিতণ্ডা হচ্ছে। শেষ পর্যন্ত তা আন্দোলন-কর্মসূচিতে গড়াচ্ছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top