প্রেমিক রেখে অন্যত্র বিয়ের চেষ্টা : যশোরে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

Screenshot_2020-11-21-Untitled-6-samakal-5fb7e9a9d8885-jpg-JPEG-Image-700-×-400-pixels.png

যশোর প্রতিনিধি: যশোরের মনিরামপুরে বৃহস্পতিবার রাতে সুস্মিতা রায় নামে এক কলেজছাত্রী ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। প্রেমিকের পরিবর্তে অন্যত্র বিয়ের চেষ্টা করায় অভিমানে সুস্মিতা রায় আত্মহত্যা করেছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ লাশ উদ্ধারের পর শুক্রবার ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। নিহত সুস্মিতা রায় মনিরামপুর সরকারি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত গ্রন্থাগারিক সুনিল রায়ের একমাত্র মেয়ে। তার গ্রামের বাড়ি উপজেলার নেহালপুর গ্রামে। ময়নাতদন্ত শেষে সন্ধ্যায় স্থানীয় শ্মশানে লাশের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে।

নেহালপুর ইউপি সদস্য আজগর আলী জানান, নেহালপুর গ্রামের সুনিল রায়ের একমাত্র মেয়ে যশোর এমএম কলেজের অনার্সের ছাত্রী সুস্মিতা রায়ের সঙ্গে তারই এক সহপাঠির প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু অভিভাবকরা প্রেমিকের পরিবর্তে সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলায় অন্য এক ছেলের সঙ্গে সুস্মিতার বিয়ের তোড়জোড় শুরু করেন। আগামী শুক্রবার সেখান থেকে সুম্মিতাকে দেখতে আশার কথা ছিল। ধারণা করা হচ্ছে এ কারণেই অভিমান করে সুস্মিতা রায় আত্মহত্যা করেছেন।

বাবা সুনিল রায় জানান, বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে সুস্মিতা খাবার খেয়ে ঘরে গিয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়। রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঘরের মধ্যে আঁড়ার সঙ্গে সুস্মিতার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান তারা। খবর পেয়ে রাতেই নেহালপুর ফাঁড়ির পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য শুক্রবার সকালে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

সুনিল রায় দাবি করেন, সুস্মিতার সঙ্গে কারোর প্রেমের সম্পর্ক ছিল কিনা তা তাদের জানা ছিল না।

মনিরামপুর থানার ওসি (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান জানান, এ ঘটনায় সুস্মিতার বাবা বাদী হয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা করেছেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: নিরাপত্তা সতর্কতা!!!