ছাত্রলীগ নেতাদের ভর্তি নিয়ে ঢাবি একাডেমিক কাউন্সিলে বাগবিতণ্ডা

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রবর্তন | প্রকাশিতঃ ১০:৩১, ২৯ অক্টোবর ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাবিষয়ক সর্বোচ্চ ফোরাম একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় তুমুল বাগ্‌বিতণ্ডা হয়েছে। অবৈধভাবে ৩৪ ছাত্রলীগ নেতার ভর্তি ও ডাকসু জিএস গোলাম রাব্বানীকে অনিয়মের মাধ্যমে এমফিলে ভর্তির সুযোগ দেওয়াকে কেন্দ্র করে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। সোমবার ঢাবির সিনেট ভবনে এ সভা হয়।

সূত্র জানায়, ডাকসু নির্বাচন সামনে রেখে ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান ৩৪ নেতাকে বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগের অধীন পরিচালিত সান্ধ্যকালীন ‘মাস্টার্স অব ট্যাপ ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রাম’-এ ভর্তি পরীক্ষা ছাড়াই বিধিবহির্ভূতভাবে ভর্তি করানো এবং রাব্বানীর এমফিল ভর্তি-সংক্রান্ত অনিয়মের বিষয় উপস্থাপিত হয় সভায়। এতে বিএনপি-জামায়াত সমর্থক সাদা দলের শিক্ষক এবং আওয়ামী লীগপন্থি নীল দলের শিক্ষকদের মধ্যে তুমুল বিতর্ক হয়।

উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে সভায় দেড় শতাধিক শিক্ষক অংশগ্রহণ করেন। সভায় পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক এবিএম ওবায়দুল ইসলাম বলেন, ডাকসু নির্বাচনে ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের ৩৪ জনের অবৈধভাবে ভর্তির প্রতিকার না হতেই রাব্বানীর অনিয়মের কথা প্রকাশিত হয়েছে। এটি ঢাবির ঐতিহ্য ও সুনামের জন্য অত্যন্ত সম্মানহানিকর। এই ৩৫ জনের অবৈধ ভর্তি প্রক্রিয়ার তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের শাস্তি দাবি করেন ওবায়দুল ইসলাম। তার এ বক্তব্যের পরই আওয়ামী লীগ সমর্থিত নীল দলের শিক্ষকরা বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানান। এ সময় উপাচার্য বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান জানান। তুমুল বাগ্‌বিতণ্ডা আর হট্টগোলের মধ্যে অধ্যাপক ওবায়দুল ইসলামের বক্তব্য এক্সপাঞ্জের ঘোষণা দেন উপাচার্য আখতারুজ্জামান।

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top