খতনা অনুষ্ঠানে দই দেওয়া নিয়ে মারামারি, ব্যবসায়ী গ্রেফতার

image-478978-1634978996.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : পাবনার চাটমোহরে সুন্নতে খতনার অনুষ্ঠানে দই দেওয়া নিয়ে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার বিকালে উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের শাহপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এতে ওই এলাকার মহেশপুর গ্রামের আবদুল জলিল মাস্টারের ছেলে নাসিম হোসেন নামে একজন আহত হলে উত্তেজিত হয়ে অনুষ্ঠান বাড়ি ঘিরে হামলার চেষ্টা চালালে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের পর প্রধান অভিযুক্ত চাটমোহর ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি শেখ জিয়ারুল হক সিন্টুকে গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার সকালে জেল হাজতে পাঠায় পুলিশ।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার উপজেলার শাহপুর গ্রামে মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে রিফাতের সুন্নতে খতনার অনুষ্ঠান উপলক্ষে দুপুরে আমন্ত্রিত লোকজন দাওয়াত খেতে আসেন। এসময় ওই এলাকার নাসিম হোসেন তার পরিবার নিয়ে খেতে বসেন। খাওয়া শেষ না হতেই প্লেটে দই দেওয়া নিয়ে জিয়ারুল হক সিন্টু’র সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় নাসিম নামের ওই ব্যক্তির। একপর্যায়ে জিয়ারুল হক সিন্টু হাতে থাকা দইয়ের খুঁটি দিয়ে মাথায় আঘাত করলে মাথা ফেটে রক্তাক্ত জখম হয় নাসিম।

এতে উত্তেজিত হয়ে পড়ে স্থানীয় লোকজন। মুহূর্তেই চেয়ার-টেবিল, প্লেট-গ্লাস ভাঙচুর করাসহ শতাধিক মানুষ ওই বাড়ি ঘেরাও করে ভাঙচুর চালায়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এছাড়া আহত নাসিমকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি এবং প্রধান অভিযুক্ত জিয়ারুল হক সিন্টুকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

পরে থানায় বাদী হয়ে নাসিম নামের ওই ব্যক্তি নামীয় এবং অজ্ঞাত কয়েকজন ব্যক্তির নামে মামলা দায়ের করলে পুলিশ শেখ জিয়ারুল হক সিন্টুকে গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার সকালে জেল হাজতে পাঠায়।

ঘটনার ব্যাপারে চাটমোহর থানার ওসি মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, সুন্নতে খতনার অনুষ্ঠানে এই ঘটনা ঘটে। এলাকার উত্তেজিত মানুষ বাড়ি ঘিরে ফেলে। তবে সময় মতো পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানোয় বড় ধরণের কোনো ঘটনা ঘটেনি। থানায় আহত ওই ব্যক্তি মামলা দায়ের করার পর অভিযুক্ত আসামীকে গ্রেফতার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top