নানা আয়োজনে বিশ্ব দৃষ্টি দিবস পালিত

eye-day-20211014150923.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : আজ বিশ্ব দৃষ্টি দিবস। দৃষ্টি সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে প্রতি বছরের অক্টোবর মাসের দ্বিতীয় বৃহস্পতিবার দিবসটি পালিত হয়। সে হিসাবে এ বছর ১৪ অক্টোবর বিশ্ব দৃষ্টি দিবস পালিত হচ্ছে।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হয়েছে। অন্ধত্ব নিবারণ ও দৃষ্টি রক্ষার উদ্দেশে দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘তোমার চোখকে ভালোবাসো’।

দিবসটি উপলক্ষে সারা দেশে অন্ধত্ব এবং দৃষ্টি প্রতিবন্ধকতা সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ হাতে নিয়েছে স্বাস্থ্য সেবা অধিদফতরের ন্যাশনাল আই কেয়ার, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং চোখের স্বাস্থ্যের জন্য আন্তর্জাতিক বেসরকারি সংস্থা (আইএনজিও) ফোরাম।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, ২ দশমিক ২ বিলিয়নের বেশি মানুষ চোখের সমস্যায় ভুগছে। এরমধ্যে দৃষ্টি প্রতিবন্ধকতায় ভুগছে বিশ্বের জনসংখ্যার এক-চতুর্থাংশ মানুষ। অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে আক্রান্তদের হার চারগুণ বেশি।

পুরো বিশ্বের প্রায় এক বিলিয়নেরও বেশি মানুষ তাদের চোখের যত্ন পান না বললেই চলে। কিন্তু এই দৃষ্টিশক্তির অর্ধেকের বেশি প্রতিরোধযোগ্য বা চিকিৎসাযোগ্য হলেও চোখের যত্নে মানসম্মত চিকিৎসার অভাবে অনেক মানুষ তাদের প্রয়োজনীয় যত্ন পায় না।

এতো বড় একটি অংশ দৃষ্টি সমস্যায় থাকায় উৎপাদনশীলতায় প্রতি বছর পুরো বিশ্বের প্রায় ৪১০ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। ২০২১ সালের ২৩ জুলাই জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে গৃহীত ‘সবার জন্য ভিশন’ এই বিষয়টি উল্লেখ করে, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য ত্বরান্বিত কর্মকাণ্ডের অংশ হিসেবে ২০৩০ সালের মধ্যে প্রতিরোধযোগ্য দৃষ্টিশক্তি হ্রাসের সঙ্গে ১ দশমিক ১ বিলিয়ন মানুষের চোখের স্বাস্থ্যের প্রতি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতিশ্রুতির প্রস্তাব উঠে। প্রস্তাবটি জাতিসংঘের ১৯৩টি দেশে সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়। এটি স্পষ্ট করে দেয়, বর্তমান বিশ্বে চোখের স্বাস্থ্য একটি অগ্রাধিকার উন্নয়ন ও মানবাধিকার বিষয়।

এদিকে বিশ্ব দৃষ্টি দিবস উপলক্ষে ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট ও সোশ্যাল মিডিয়া সমাবেশ, আলোচনা সভা ও নানা ধরনের সচেতনতামূলক কর্মসূচির আয়োজন করছে ন্যাশনাল আই কেয়ার। এছাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৩০টি কমিউনিটি ভিশন সেন্টার, ৬৪টি জেলা হাসপাতাল ও বেসরকারি হাসপাতালে (মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল) ন্যাশনাল আই কেয়ারের নির্দেশনায় বিভিন্ন কার্যক্রমের মাধ্যমে এই দিনটি উদযাপন করছে।

দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি বলেন, বিশ্ব দৃষ্টি দিবস বাংলাদেশের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন। এই দিনটি আমাদের দৃষ্টি এবং চোখের স্বাস্থ্যের গুরুত্বের কথা মনে করিয়ে দেয়।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় চোখের স্বাস্থ্য সুবিধা থেকে চোখের স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণের বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top