সড়কে প্রাণ গেল ২ জনের

accident-20211014120326.jpg

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জে রাস্তা পার হওয়ার সময় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় এক বৃদ্ধা এবং ঝিনাইদহে যাত্রীবাহী আলমসাধু নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) সকালে এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

আমাদের সুনামগঞ্জ ও ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধির পাঠানো খবরে জানা যায়-

সুনামগঞ্জ-সিলেট মহাসড়কের সুনামগঞ্জের নীলপুর বাজার এলাকায় রাস্তা পারাপারের সময় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় রেজিয়া খাতুন (৮০) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

রেজিয়া খাতুন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার লক্ষ্মণশ্রী ইউনিয়নের রাবার বাড়ি এলাকার মৃত এরশাদ আলীর সহধর্মিণী। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. এজাজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে ঝিনাইদহে যাত্রীবাহী আলমসাধু নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও চারজন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) সকালে সদর উপজেলার গান্না ইউনিয়নের গান্না বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে

স্থানীয়রা জানায়, কোটচাঁদপুর তালসার এলাকা থেকে আলমসাধু করে শ্রমিকদের ৪-৫ জনের একটি দল কালীগঞ্জ যাচ্ছিলেন। গান্না এলাকায় পৌঁছালে চুয়াডাঙ্গা থেকে আসা যাত্রীবাহী বাস ওভারটেক করার সময় আলমসাধু নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলেই শ্রমিক ফজলুর রহমান নিহত হয়। ফজলুর কোটচাদপুর উপজেলার তালসার গ্রামের জাফর মোল্ল্যার ছেলে।

গান্না ইউনিয়ন পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই রফিক বলেন, সকালে ৪-৫ জনের একদল শ্রমিক কাজের উদ্দেশে আলমসাধুতে চড়ে কোটচাঁদপুর তালসার থেকে কালীগঞ্জ যাচ্ছিলেন। এ সময় চুয়াডাঙ্গা থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস আলমসাধুকে ওভারটেক করার সময় ধাক্কা দেয়। এ সময় আলমসাধুর চালক রাস্তা থেকে নেমে যেতে বাধ্য হয়। পরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশের গাছের সঙ্গে সজোরে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই একজন নিহত হন ও চারজন আহত হন। তবে বাসটিকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

কালীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ শেখ মামুনুর রশীদ জানান, আমরা ঘটনাস্থল থেকে একটি মরদেহ উদ্ধার করি। আহতদের মধ্যে আরও এক শ্রমিকের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top