অনুমোদন ছিল ৬ তলার, দাঁড়িয়ে গেল ১১ তলা

building-20211013074718.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : ৬ তলার অনুমোদন নিয়ে ১১ তলা নির্মাণ করার অভিযোগে কুমিল্লার দেশওয়ালী পট্টিতে একটি ভবন ভাঙার কাজ শুরু করেছে কুমিল্লা সিটি কপোরেশন (কুসিক)।

মঙ্গলবার ( ১২ অক্টোবর ) দুপুরে কুসিক মেয়র মনিরুল হক সাক্কুর নেতৃত্বে  তালুকদার হাউজ নামের ভবনটি ভাঙার কাজ শুরু হয়।

কুমিল্লা পৌরসভা থাকাকালীন ভবনটি নির্মাণে ৬ তলার অনুমোদন নিয়েছিলেন সাদেকুর নামে এক ব্যবসায়ী। পরবর্তীতে নির্দেশনা অমান্য করে ১১ তলা পর্যন্ত বর্ধিত করেন তিনি। বিষয়টি কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের নজরে আসার পর তাকে কয়েক দফা চিঠি দেওয়া হয়। কিন্তু ভবনটি ভাঙার কোনো উদ্যোগ নেননি সাদেকুর রহমান।

কুসিকের সার্ভেয়ার  আবুল কাসেম বলেন, ১৫ দিন আগে এই ভবনের বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। তখন মালিকপক্ষ কথা দিয়েছিল নিজ উদ্যোগে ভবনের বর্ধিত অংশ ভেঙে ফেলবে। পাশেই একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। ভবনটি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। যেকোনো মুহূর্তে ভবনটি ভেঙে পড়ে হতাহতের ঘটনা ঘটতে পারে। তাই মেয়র জরুরি ভিত্তিতে ভবনটি ভাঙার নির্দেশনা দিয়েছেন।

তালুকদার হাউজের ম্যানেজার মিজানুর বলেন, এই ভবনে ২০টির বেশি পরিবার ছিল। বিদ্যুৎ-পানি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার পর ভাড়াটিয়ারা চলে যান। বর্তমানে একটি পরিবার আছে। এই ভবনটি নকশাবহির্ভূত কি না তা জানি না । সিটি কর্পোরেশন অভিযানের বিষয়টি ভবন মালিককে জানানো হয়েছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top