ইউপি সদস্যের সুদের টাকা দিতে না পেরে প্রাণ হারালো যুবক

image-92732-1569505809.jpg

যশোর অফিস, প্রবর্তন | প্রকাশিতঃ ২১:০৩, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সুদের টাকা পরিশোধে বাবা ব্যর্থ হওয়ায় সুদখোরের মানষিক নির্যাতনে জীবন গেল ছেলে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঘরের মধ্যে সিলিং ফ্যানে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে। নিহত ইন্দ্র্রজিৎ ঘোষ (২২) যশোর সদর উপজেলার তীরেরহাট গ্রামের নিখিল ঘোষের ছেলে।

নিহতের স্বজনরা জানান, তার বাবা নিখিল ঘোষ একই এলাকার নুরু চোরের ছেলে ইউপি সদস্য শাহজাহান আলী সরদারের কাছ থেকে কয়েকমাস আগে সুদে টাকা নেয়। প্রতিমাসে মুল টাকার সুদের অংশ দিতে হয়। ওই টাকা দিতে না পারায় শাহজাহান আলী সরদার ও তার লোকজন কয়েকদিন আগে নানাভাবে অপমান করে। বৃহস্পতিবার সকালেও শাহজাহান আলীর লোকজন এসে ইদ্রজিতের সামনে তার বাবাকে অপমান করে। এতে সে ক্ষুদ্ধ হয়ে আত্মহত্যা করেছে।

যশোর কোতয়ালি থানার এসআই মিজানুর রহমান লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন।

এসআই মিজানুর রহমান জানান, তার বাবা অনেক টাকা দেনাদার। পাওনাদার সম্ভবত এসে তার বাবাকে অপমান করেছে। যার কারণে সে আত্মহত্যা করেছে। তাছাড়া ইন্দ্রজিতের পরিবার থেকে অদৃশ্য কারণে কেউ মুখ খুলছে না। আত্মহত্যার কারণ খোঁজা হচ্ছে।

স্থানীয় অনেকেই জানান, শাহজাহান আলী সরদার হঠাৎ করে কোটিপতি হয়ে গেছেন। অত্র অঞ্চলে প্রায় কোটি টাকা বিভিন্ন মানুষের কাছে সুদে লাগানো রয়েছে।

তীরেরহাটের ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন জানান, ইন্দ্রজিতের বাবা নিখিল ঘোষ ইউপি সদস্য শাহজাহান আলী সরদারের কাছ থেকে সুদে টাকা নেয়। ওই টাকা পরিশোধে ব্যর্থ হওয়ায় শাহজাহান আলী চাপ দিতে থাকে। পিতাকে গালিগালাজ করায় সে আত্মহত্যা করেছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top