খুলনার জলমায় ২৪ দিনে ৪ লাশ উদ্ধার

118993268_gettyimages-1284207286.jpg

মোঃ শাওন হাওলাদার : বটিয়াঘাটা প্রতিনিধিঃ খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার জলমা ইউনিয়নের ছয়ঘরিয়া- গুপ্তমারী কলেরবাড়ী সংলগ্ন মহিলা পুলিশ কনস্টেবল সুলতানার ক্রয়কৃত বালু ভরাট জমির উপর থেকে মোঃ আইয়ুব আলী মোল্লা (২৫) নামের এক ইজিবাইক চালক ও ভাঙ্গাড়ি ব্যবসায়ীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে বটিয়াঘাটা থানা পুলিশ। সে উপজেলার বিরাট গ্রামের মৃতঃ মোনতাজ আলী মোল্লার ছেলে। তার বর্তমান ঠিকানা জিরোপয়েন্ট কাদেরের অটো রাইস মিল।

ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে গভীর রাতের যে কোন সময়ে।পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, আইয়ুব আলী মোল্লা বাবা ও মা উভয়ের দ্বিতীয় বিয়ের পর থেকেই বাড়ী ছাড়া হয়। সেই থেকে সে উপজেলার জিরোপয়েন্ট এলাকার কাদেরের অটোরাইস মিলে থেকে ভাড়ায় চালিত ইজিবাইক চালানোর পাশাপাশি যৌথ ভাঙ্গাড়ির ব্যবসা করতো।গত ১০ বছর ধরে সে লবনচরা জিরোপয়েন্ট এলাকার জিএম মাসুদ রানার স্ত্রী শিরিনা আক্তারের গ্যারেজ থেকে একটি ইজিবাইক ভাড়া নিয়ে জীবন জীবিকা নির্বাহ করছিলো।এর পাশাপাশি সে তিন বন্ধু মিলে পুরাতন মালামাল ভাঙ্গাড়ির ব্যবসাও করতো।

গতপরশু বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে তার ভাঙ্গাড়ি ব্যবসার সহযোগী জনৈক আলাউদ্দিন জিরোপয়েন্ট থেকে ৭ শত টাকার বিনিময়ে দাকোপ উপজেলার চালনায় যাওয়া ও আসার কথা বলে চুক্তি করে নিয়ে যায়।সন্ধ্যার পর রাতের যে কোন সময়ে উক্ত স্হানে নিয়ে তারা মাথায় হাঁতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে ফেলে দিয়ে ইজিবাইক নিয়ে পালিয়ে যায়। পরদিন শুক্রবার ভোরে স্হানীয় লোকজন তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানা পুলিশকে খবর দেয়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ সনাক্ত করে ইজিবাইক মালিক শিরিনাকে খবর দিয়ে আনলে এর পাশাপাশি আলাউদ্দিন সহ আরও দুই বন্ধুর সাথে ভাঙ্গাড়ির ব্যবসা করতো বলে পুলিশ জানায়।এরপর পুলিশের চাহিত মতে শিরিনার মোবাইল ফোন দিয়ে ভাঙ্গাড়ি ব্যবসায়ী আলাউদ্দিনকে মল্লিকের মোড় এলাকায় ডাকলে সে সেখানে হাজির হলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে ও তার অপর দুই বন্ধু যোগসাজশে ব্যবসার ভাগ বাটোয়ারা বিবাদ নিয়ে তাকে হত্যা করে ফেলে দিয়ে আসে।পরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক লাশের পাশে বালুতে পুঁতে রাখা হত্যার কাজে ব্যবহৃত একটি হাঁতুড়ি উদ্ধার পূর্বক লাশ ময়নাতদন্তের জন্য খুমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।পুলিশ অন্য দুই সহযোগীকে গ্রেফতারের জন্য খুঁজছে। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) সুশান্ত সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ব্যপারে নিহতের মা শাহিদা বেগম ৩০২/ ৩৪ ধারায় ১ জনের নামাউল্লেখ সহ আরও ২/৩ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির নাম দিয়ে গতকাল শুক্রবার একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

গত ১লা সেপ্টেম্বর থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বটিয়াঘাটা উপজেলার জলমা ইউনিয়নে খুন হয়েছে ৪ জন।  গত ১লা সেপ্টেম্বরে বাঁশবাড়িয়া লক্ষীমাতা মন্দিরে স্যাফটি ট্যাংঙ্কির নীচে গোলাম রসুল (২০ )এর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। যার মামলা নং ০২/২১,গত বৃহষ্পতিবার মোহাম্মদনগর এলাকার একটি ইজিবাইক চার্জিং গ্যারেজ থেকে মোঃ শামীম (২০) নামের গ্যারেজ ম্যানেজারের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।গত ১৮ সেপ্টেম্বর মামুন হাওলাদার( ২৪) নামের এক যুবককেও হত্যা করা হয়। যার মামলা নং ০৮/২১ এবং গতকাল শুক্রবার খুন হয়েছে মোঃ আয়ুব মোল্লা (২০) নামের যুবক । এদিকে উপজেলার জলমা ইউনিয়নে ঘন ঘন উইকেট পাড়ায় এক সময়ের চরমপন্থীদের অভয়ারণ্য হিসেবে পরিচিত শান্ত জলমা আবারও অশান্ত হয়ে উঠেছে । সাধারণ মানুষের মাঝে চরম হত্যা আতঙ্কে ভুগছে । এবিষয়ে এলাকাবাসী আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে ।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top