তিন লাখ টাকার অভাবে মরণ পথের যাত্রী এতিম হাফেজ ছাত্র

sharonkhola-picture11.jpg

শরণখোলা প্রতিনিধি : আজিজুর রহমান(১৫), বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার পুর্ব আমড়াগাছিয়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত.সরোয়ার হোসেনের ছেলে ও আমতলী ইসলামীয়া কামিল মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র।

গত ৩ মাস পুর্বে আজিজুর হঠাৎ পেটে ব্যাথা অনুভব করেন। তার পর সে স্থানীয়ভাবে কিছু ওষুধ সেবন করেন। এতে ব্যাথা না কমায় পরীক্ষা করে জানতে পারেন তার এ্যাপেন্ডিসাইড হয়েছে। টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে বিলম্ব হওয়ায় এ্যাপেন্ডিসাইট ফেঁটে যাওয়ার কারণে কিশোর আজিজুর এখন মৃত্যু পথযাত্রী।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ৩ লাখ টাকা হলে নুতন করে চিকিৎসায় ভালো হতে পারেন আজিজুর।

অসুস্ত আজিজুরের মা নাছিমা বেগম বলেন, ওর বাবা সাগরে মাছ ধরত গিয়ে ২০০৭ সালের সিড়রে মারা যান। পরে আমি দুই ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে আমার দিনমজুর পিতা ছোমেদ খানের সংসারে থেকে যাই। অন্য ছেলে ও মেয়েকে তেমন পড়ালেখা করাতে পারি নাই । কিন্তু মৃত্যুর পরে সন্তানের দোয়া পেতে আজিজুরকে আমতলী ইসলামীয়া কামিল মাদ্রাসায় ভর্তি করাই। এতিম হিসেবে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ আজিজকে বিনা খরচে পড়ায়। ইতিমধ্যে সে পবিত্র কোরআনের ২৮ পাড়া মুখস্ত করেছেন। আমার মানিককে বাঁচাত বহু টাকার দরকার এখন সেই টাকা কোথায় পাই। তাই আজিুরের চিকিৎসার জন্য আমি স্থানীয়ভাবে মানুষের কাছে হাত পেতে সামান্য কিছু টাকা পেয়েছি। এতে আজিজুরকে সুস্থ করা সম্ভব নয়। তাই আমার ছেলেকে বাঁচাতে সরকারসহ দানশীল ব্যক্তিদের কাছে সাহায্য কামনা করছি আমি। সাহায্য ও যোগাযোগের মোবাইল নম্বর- ০১৯০৯৯৮০৪২৪।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: নিরাপত্তা সতর্কতা!!!