খুলনায় পিইসির প্রস্তুতি নিচ্ছে ৩৫ হাজার শিক্ষার্থী

PEC-2109140730.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট :  সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষার জন্য খুলনা জেলায় এবার ৩৫ হাজার শিক্ষার্থী প্রস্তুতি নিচ্ছে। নভেম্বরের শেষ অথবা ডিসেম্বরে এ পরীক্ষা হতে পারে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এএসএম সিরাজুদ্দোহা বলেন, সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পিইসি পরীক্ষার আভাস পাওয়া যাচ্ছে। বাংলা, ইংরেজি, গণিত, ধর্ম, বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় এবং প্রাথমিক বিজ্ঞান বিষয়ে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা হবে। গত বছরে পরীক্ষার্থী ছিল ৩৭ হাজার ৮১৬ জন, এবার পরীক্ষার্থী ৩৫ হাজার, ৬৫২ জন। অন্যান্য বছরে ২০ নভেম্বর পিইসি পরীক্ষা হয়। এবার নভেম্বরের শেষ অথবা ডিসেম্বরের প্রথম দিকে এ পরীক্ষা হবে।

তিনি জানান, জেলার এক হাজার ১৫৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রোববার ৭০ শতাংশ এবং সোমবার ৭৫ শতাংশ শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিল। ৯টি বিদ্যাপীঠের নতুন ভবন হওয়ায় পার্শ্ববর্তী স্কুলে তাদের ক্লাস হচ্ছে।

সিএন্ডবি কলোনী আদর্শ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এলিজা পারভিন বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও শিক্ষার্থীরা বাড়িতে পড়ালেখা করেছে। তাদের দেওয়া অ্যাসাইনমেন্ট অনুযায়ী ওয়ার্কশিট জমা দিয়েছে। দীর্ঘ বন্ধের পর শিক্ষার্থীরা পাঠ্যপুস্তকের যেসব অধ্যায় বুঝতে অসুবিধা হচ্ছে, তাদের ঘাটতি পূরণ করানোর চেষ্টা চলছে। এবারের পিইসিতে ৫৬ জন অংশ নেবে, গতবার এর সংখ্যা ছিল ৫৮ জন।

চারাবাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পলি পাল জানান, চতুর্থ-পঞ্চম শ্রেণির ক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিদ্যাভ্যাস না করলেও শিক্ষার্থীরা লেখাপড়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়নি। সরকারি নির্দেশনায় নভেম্বরে পরীক্ষা হলে শিক্ষার্থীরা যথেষ্ট প্রস্তুতি নিয়ে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের অংশ নিতে পারবে।

উদয়ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মনিরুল ইসলাম ও পিটিআই পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিপুল মন্ডল বলেন, পিইসি পরীক্ষার জন্য তাদের স্কুলের শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত করা হচ্ছে। যে সময় আছে, তাতে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে মোটামুটি প্রস্তুতি নেওয়া সম্ভব হবে বলে তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top