দূরপাল্লার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া

image-464597-1631507668.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : উত্তর কোরিয়া জানিয়েছে, দেশটি গত সপ্তাহের শেষ দিকে সফলভাবে দূরপাল্লার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দেশটির পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা থমকে আছে। এর মধ্যে দেশটি নিজেদের সামরিক সক্ষমতা বাড়িয়েই যাচ্ছে।

উত্তর কোরিয়ার গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানায় কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আলজাজিরা।

কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি সোমবার জানায়, দুই বছর ধরে এ ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের উন্নয়নকাজ চলছিল, যা এক হাজার ৫০০ কিলোমিটার (৯৩০ মাইল) দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানে। উত্তর কোরিয়ার জলসীমার মধ্যেই পড়েছে শনি ও রোববার পরীক্ষা চালানো ক্ষেপণাস্ত্রগুলো।

উত্তর কোরিয়া তাদের নতুন এ অস্ত্রকে ‘অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ কৌশলগত অস্ত্র’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে, যা সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের সামরিক শক্তি বাড়ানোর পরিকল্পনার বাস্তবায়ন।

পিয়ংইয়ং সর্বশেষ মার্চে নতুন স্বল্পপাল্লার কৌশলগত ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছিল। দেশটি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেন ক্ষমতা বুঝে নেওয়ার ঘণ্টাখানেক পরও ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায়।

জাপানের চিফ কেবিনেট সেক্রেটারি কাতসুনুবু কাতো বলেন, টোকিও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে। এ পরিস্থিতি যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করবে জাপান।

যুক্তরাষ্ট্রের ইন্দো-প্যাসিফিক কমান্ড এক বিবৃতিতে জানায়, এ পরীক্ষা ডিপিআরকের (উত্তর কোরিয়া) সামরিক কর্মসূচির উন্নয়নে ক্রমাগত প্রচেষ্টা এবং তার প্রতিবেশী ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের জন্য হুমকি সৃষ্টি করার বিষয়টি তুলে ধরে।যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানকে যে কোনো পরিস্থিতিতে ‘রক্ষা করে’ যাবে।

দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ (জেসিএস) ইয়ুনহাপ নিউজ এজেন্সিকে বলেন, মার্কিন গোয়েন্দাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সহযোগিতার মাধ্যমে এ বিষয়ে একটি গভীর বিশ্লেষণ চলছে। তবে তিনি বিস্তারিত কিছুই জানাননি।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top