খুলনায় ইউপি নির্বাচনে আ’লীগের সকল বিদ্রোহী প্রার্থী বহিস্কার

241533834_2987172708209621_886534793715852195_n-1.jpg

বিজ্ঞপ্তি: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ খুলনা জেলা শাখার বর্ধিত সভা ও কার্যনিবাহি কমিটির সভা আজ শনিবার সকাল ১০ টায় দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ হারুনুর রশীদ। সভা পরিচালনা করেন খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সস্পাদক এ্যাড: সুজিত অধিকারী।

সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, আগামী ২০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থীকে জয় লাভ করাতে হবে এর কোন বিকল্প নাই। নৌকা প্রার্থীর বিপক্ষে যে সকল নেতা কমী অবস্থান নেবেন তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। নেতৃবৃন্দ বলেন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। এই উন্নয়নের ধারা কে অব্যাহত রাখতে হলে আগামী নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী কে বিজয় লাভ করাতে হবে।

সভায় সর্বসম্মতিক্রমে আসন্ন ২০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর (নৌকার) বিপক্ষে নির্বাচনে অংশগ্রহনকারী খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হায়দার মোড়ল, কয়রা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিজয় কুমার সরকার, সহ সভাপতি আমির আলী গাঈন, দিঘলিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মফিজুল ইসলাম ঠান্ডু মোল্যা, পাইকগাছা থানা আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মজিদ গোলদার, সেনহাটী ইউনিয়নে গাজী জিয়াউর রহমান, কয়রা উপজেলার বেদকাশী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা মোড়ল আছের আলী, বটিয়াঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগ সদস্য শেখ মোঃ আসাবুর রহমান, দাকোপ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য সঞ্জয় মোড়ল, বানিসান্তা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সদস্য সুভাংশু বদ্ধ্য, কামারখোলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সদস্য সমরেশ রায় সহ সকল বিদ্রোহী প্রার্থীদের স্ব স্ব দলীয় পদ হতে সাময়িক বহিস্কারের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আগামী ৩ দিনের মধ্যে কেন তাদের স্থায়ী বহিস্কার করা হবে না মর্মে কারণ দর্শানোর জবাব জেলা দপ্তরে জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। এছাড়া আাওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কোন নেতাকর্মী বিদ্রোহী প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করে থাকেন তাদেরকে আগামী ৩ দিনের মধ্যে নৌকার পক্ষে কাজ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন্যথায় তারাও সাময়িক বহিস্কার হবেন।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় কমিটির সদস্য সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোল্যা জালাল উদ্দিন, সহ সভাপতিবৃন্দ যথাক্রমে এ্যাড. সোহরাব আলী সানা, এ্যাড. কাজী বাদশা মিয়া, এ্যাড. এম. এম. মুজিবর রহমান, এ এফ এম মাকসুদুর রহমান, এ্যাড. রবীন্দ্রনাথ মন্ডল, নারায়ন চন্দ্র চন্দ এমপি, আব্দুস সালাম মুর্শিদী এমপি, আক্তারুজ্জামান বাবু এমপি, অধ্যক্ষ দেলোয়ারা বেগম, অধ্যক্ষ এ বি এম শফিকুল ইসলাম, বি এম এ ছালাম, মোস্তফা কামাল খোকন, অধ্যাঃ এ্যাড. নিমাই চন্দ্র রায়, মোঃ রফিকুর রহমান রিপন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ যথাক্রমে মোঃ সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু, মোঃ কামরুজ্জামান জামাল, এ্যাড. ফরিদ আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদকবৃন্দ সরদার আবু সালেহ, ইঞ্জিনিয়ার প্রেম কুমার মন্ডল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জোবায়ের আহম্মেদ খান জবা, দপ্তর সম্পাদক এম এ রিয়াজ কচি, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. নব কুমার চক্রবর্তী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অজয় সরকার, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক শ্রীমন্ত অধিকারী রাহুল, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. তারিক হাসান মিন্টু, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. শাহ আলম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শেখ মো. রকিকুল ইসলাম লাবু, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক হালিমা ইসলাম, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক কাজী কেরামত আলী, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক কাজী শামীম আহসান, শ্রম সম্পাদক মোজাফফর মোল্যা, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোকলেসুর রহমান বাবলু, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক ডাঃ মো. শেখ শহীদ উল্লাহ্, উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক খায়রুল আলম, উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েদুজ্জামান সম্রাট, সদস্যবৃন্দ যথাক্রমে ননী গোপাল মন্ডল, খান নজরুল ইসলাম, শেখ মনিরুল ইসলাম, আশরাফুল আলম খান, শেখ আকরাম হোসেন, শেখ আবুল হোসেন, আনোয়ার ইকবাল মন্টু, জিএম মহসিন রেজা, শেখ শহিদুল ইসলাম, গাজী এজাজ আহম্মেদ, কামাল উদ্দিন বাদশা, অসিত বরণ বিশ্বাস, বুলু রায় গাঙ্গুলী, জাহাঙ্গীর হোসেন মুকুল, ফারহানা হালিম, মোসা: সামসুন্নাহার, শিউলি সরোয়ার, শাহিনা আক্তার লিপি, ফারজানা নিশি, অমিয় অধিকারী, আনিসুর রহমান মুক্ত, মোঃ আজগর বিশ্বাস তারা, রবার্ট নিক্সন ঘোষ, নান্টু রায়, মোঃ জামিল খান, বিভিন্ন উপজেলা কমিটির সাধারন সম্পাদক বৃন্দ যথাক্রমে কামরুল হাসান টিপু, সরদার আবুল কাশেম ডাবলু, মোল্লা আকরাম হোসেন, কে,এম আলমগীর হোসেন, দীলিপ হালদার, শাহনেওয়াজ জোয়াদ্দার, মহিলা লীগ জেলা সভাপতি জাহানারা শহীদ, সাধারন সম্পাদক হোসনেয়ারা চম্পা, কৃষক লীগ জেলা সভাপতি অধ্যাপক আশাফুজামান বাবুল, সাধারন সস্পাদক মানিকুজামান অশোক, স্বাচিপ খুলনা জেলার সভাপতি ডা. সামছুল আহসান, সাধারন সম্পাদক ডা. মোঃ মেহেদি নেওয়াজ, যুব মহিলা লীগ জেল আহবায়ক এ্যাড. সেলিনা আক্তার পিয়া, যুগ্ম আহবায়ক এ্যাড জেসমিন পারভিন জলি, তাঁতি লীগের জেলা যুগ্ম আহবায়ক রাফেল হোসেন বাবু, সদস্য সচিব কাজী আজাদুর রহমান, স্বেচ্ছাসেবক লীগ জেলা যুগ্ম আহবায়ক মোতালেব হোসেন ও খান সাইফুল ইসলাম, জেলা ছাত্র লীগের সভাপতি পারভেজ হাওলাদার প্রমুখ।

এছাড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারন সম্পাদক ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহনে উপজেলা ভিত্তিক বিশেষ বর্ধিত সভা করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৪ সেপ্টেম্বর সকালে কয়রা উপজেলায়, বিকেলে পাইকগাছা উপজেলায়, ১৫ সেপ্টেম্বর দাকোপ উপজেলায়, ১৬ সেপ্টেম্বর বটিয়াঘাটা উপজেলায় এবং ১৭ সেপ্টেম্বর দিঘলিয়া উপজেলায় বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হবে।

সভায় শোক প্রস্তাব গ্রহন করা হয় এবং গত সভার পর থেকে আজ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া করা হয়।

 

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top