ব্রাজিলের সঙ্গে ম্যাচ স্থগিতে আর্জেন্টিনারই লাভ

image-462040-1630882125-1.webp

ডেস্ক রিপোর্ট: বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের বিপক্ষে খেলতে তিন দিন আগেই দেশটিতে পা রেখেছিলেন আর্জেন্টাইনরা। অনুশীলনও করলেন। হোটেলে সময় কাটালেন। দলও ঘোষণা করা হলো ম্যাচ শুরুর বেশ কয়েক ঘণ্টা আগে।

আর মাঠে খেলা শুরু হতেই হুঁশ এলো ব্রাজিলের স্বাস্থ্যকর্তাদের। আর্জেন্টিনার চার খেলোয়াড় কোয়ারেন্টিনবিধি না মেনে খেলতে নেমেছেন বলে খেলাই বন্ধ করে দিলেন তারা।

অবশ্য আর্জেন্টিনার চার খেলোয়াড়কে ব্রাজিল থেকে বের করে দেওয়া হতে পারে, এমন খবর সারাদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল। কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে ব্রাজিল কোনো পদক্ষেপই নেয়নি।

অভিযুক্ত চার খেলোয়াড় হলেন- এমিলিয়ানো মার্তিনেজ, জোভান্নি লো সেলসো, এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া ও ক্রিস্টিয়ান রোমেরো।

আর্জেন্টিনা দলের কোচ লিওনেল স্কালোনির দাবি, এই চার খেলোয়াড়ের কোয়ান্টিন নিয়মভঙ্গের বিষয়ে আগাম কোনো তথ্যই দেয়নি ব্রাজিল কর্তৃপক্ষ।

দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবল কনফেডারেন কনমেবল আর্জেন্টিনাকে আশ্বস্ত করে, খেলতে পারবেন এই চার খেলোয়াড়।

এর পরও ম্যাচ শুরুর ৭ মিনিট পর খেলা স্থগিত হলোই। এতে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা সমর্থকরা হতাশ হলেও একটি খবরে সেই হতাশা কেটে যাবে অনেকটাই।

ম্যাচ স্থগিত হয়ে যাওয়ার পর প্রশ্ন উঠেছে, এ ম্যাচের তিন পয়েন্ট কে পাবে? ব্রাজিল না আর্জেন্টিনা? লাভ হচ্ছে কার?

এ ক্ষেত্রে আর্জেন্টিনার লাভ হতে যাচ্ছে।  কনমেবল বলছে, তিন পয়েন্ট ভাগ্যে জুটবে আর্জেন্টিনারই।

কনমেবলের শৃঙ্খলাবিধির ৭৪ নম্বর ধারা এমনটিই জানাচ্ছে। সেখানে উল্লেখ রয়েছে, ম্যাচ শুরু হয়ে গেলে খেলা থামিয়ে খেলোয়াড়দের ম্যাচ খেলায় নিষেধাজ্ঞা দেওয়া যাবে না। যে কোনো সমস্যা থাকলে সেটা ম্যাচ শুরুর আগে বা পরে সমাধান করতে হবে। ম্যাচ চলাকালী নয়। এর পরও যদি ম্যাচ চলাকালীন বাধা দিয়ে তা পণ্ড করা হয়, তবে যে দলের কারণে ম্যাচ থেমে যাবে, সে দল তিন পয়েন্ট হারাবে। প্রতিপক্ষ দল পাবে সেই তিন পয়েন্ট।

সে হিসেবে সুবিধাজনক অবস্থানে আছে আর্জেন্টিনা। কারণ ওই চার খেলোয়াড়ের বিষয়ে আগেই আশ্বস্ত করেছিল কনমেবল। ব্রাজিল পক্ষ থেকেও কোনো বাধা আসেনি ম্যাচ শুরুর আগে।

আর সেই ম্যাচ শুরুর পর সেই ব্রাজিলের স্বাস্থ্যকর্মীরাই তুলকালাম শুরু করে দেন।

আর্জেন্টিনার সংবাদমাধ্যম এইরে দে সান্তা ফে’র সাংবাদিক আন্দ্রেস ইয়োসেন তার এক টুইটে এসব বিষয় তুলে ধরেছেন।

আর্জেন্টিনা পূর্ণ ৩ পয়েন্ট পাচ্ছে সেটা অবশ্য এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেয়নি কনমেবল। তারা পুরো  বিষয়টি ফিফার ওপর ছেড়ে দিয়েছে।

ফিফা জানিয়েছে, তাদের শৃঙ্খলা রক্ষাকারী কমিটির রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে।

অর্থাৎ ৩ পয়েন্ট আর্জেন্টিনা পেতে যাচ্ছে বলে অনেকটাই নিশ্চিত।

পুরো ম্যাচে বল দখলে প্রায় সমতা থাকলেও আক্রমণে এগিয়ে ছিল ইতালি। শেষ দিকে অবশ্য চিত্র কিছুটা উল্টে যায়। ইতালির মোট ১০ শটের সাতটি ছিল লক্ষ্যে। আর সুইজারল্যান্ডের আট শটের মাত্র দুটি লক্ষ্যে থাকে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top