‘সালমানকে সেদিনই প্রথম দেখেছি, আর দেখা হয়নি’

image-462094-1630903861.webp

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলা চলচ্চিত্রে সালমান শাহর আগমন ছিল অনেকটা ধ্রুবতারার মতো।  ক্ষণিক সময়ে অভিনয় করে সবার মন জয় করে চলে গেছেন পরপারে।  এই নায়ক অল্প সময়ে যে দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছিলেন তা কারো পক্ষে কল্পনা করা যায় না।  সবাই একবাব্যে মানেন, সালমানের মতো নায়ক ঢালিউডে আর আসেনি।

সালমানের চলে যাওয়ার আড়াই দশক পার হয়ে গেছে।  দীর্ঘ এই সময়েও তার সিনেমাগুলো বারবার দর্শক দেখছেন আর তার অভিনয়গুণের প্রশংসা করছেন।

১৯৯৬ সালের এই দিনে পৃথিবী ছেড়ে চলে যান ক্ষণজন্মা এ নায়ক। তার মৃত্যু আন্মহত্যা নাকি হত্যা, সেটা এখনও রহস্য।  মাত্র তিন বছরের ক্যারিয়ারে অনেক ব্যবসাসফল সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি।

জীবদ্দশায় অভিনয় করেছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী, শাবনূর, শাবনাজ, শাহনাজ, শিল্পী, লিমা, বৃষ্টি ও শ্যামার সঙ্গে।  তার সঙ্গে অভিনয় করার ইচ্ছে ছিল বহু নায়িকার। কিন্তু সেই সুযোগ হয়নি।

সালমান সবচেয়ে বেশি অভিনয় করেছেন শাবনূরের বিপরীতে (১৪টি)।  চিত্রনায়িকা পপি তখন সিনেমায় কাজ শুরু করলেও সালমানের বিপরীতে বেশ কয়েকটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন; কিন্তু সালমানের মৃত্যুর কারণে পপির মনের আশা আর পূরণ হয়নি।  অন্যদিকে পূর্ণিমাও তখন সিনেমায় কাজ শুরু করেন। তবে জীবদ্দশায় তার সঙ্গে এ নায়কের কোনো ছবিতে অভিনয় করা হয়নি।  কারণ পূর্ণিমা তখন শিশুশিল্পী।  তবু তার সঙ্গে ক্ষণকালের স্মৃতি রয়েছে এ নায়িকার।

একদিন শিশুশিল্পী হিসাবেই স্বপন চৌধুরী পরিচালিত ‘শত্রু ঘায়েল’ সিনেমার শুটিং করছিলেন পূর্ণিমা। শুটিং চলছিল বিএফডিসির দুই নম্বর ফ্লোরে। সেখানে সোহেল রানা, রুবেল, অঞ্জু, অরুণা বিশ্বাস, সাবিহা, হুমায়ুন ফরীদিসহ আরও অনেকেই শুটিং করছিলেন, ছিলেন পূর্ণিমাও।

সেখানেই একদিন দেখা হয়েছিল সালমান শাহের সঙ্গে।  অকাল প্রয়াত নায়কের সঙ্গে প্রথম দেখার স্মৃতিচারণ করে পূর্ণিমা বলেন, ‘সেদিন পাশের ফ্লোরেই সালমান ভাইয়ের শুটিং ছিল। আমার স্পষ্ট মনে আছে একটি মেরুন কালার শার্ট আর চোখে সানগ্লাস পরে হঠাৎ করেই তিনি আমাদের সিনেমার সেটে এসে হাজির। অঞ্জু ম্যাডামের পাশে বেশ বিনয়ের সঙ্গেই বসেছিলেন তিনি। মনে মনে আমি ভাবছিলাম-ইস আমাকে যদি কেউ একটু তার কাছে নিয়ে যেত! সেদিনই প্রথম দেখেছি। কথা হয়নি। এরপর আর কোনোদিন তার সঙ্গে দেখা হয়নি। পরে নায়িকা হিসাবে আমার অভিষেক হলো। কিন্তু তার আগেই তিনি আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন। তার মতো নায়ক আর আসেনি আমাদের চলচ্চিত্রে।’

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top