ভাইরাল ভিডিওটি খুলনার : সন্তানকে অস্ত্র চালানো শেখাচ্ছেন বাবা

1630920665.Gun-1.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট: সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ৬ মিনিট ৩৬ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একজন মধ্যবয়স্ক ব্যক্তি দুই শিশুকে পিস্তল চালানো শেখাচ্ছেন। শিশু দুটির বয়স আনুমানিক চার ও সাত বছর হবে। তাদের বিভিন্ন জায়গায় গুলি চালানো শেখাচ্ছেন ওই ব্যক্তি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ভিডিওটি ২০১৬ সালের। খুলনার সুন্দরবন এলাকায় ধারণ করা। ওই ব্যক্তির নাম জাহিদুল ইসলাম। তিনি তখন কয়রার ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তখন ভিডিওটি করে তিনি নিজেই ফেসবুকে দিয়েছিলেন।

সম্প্রতি ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে। বাচ্চাদের এভাবে আগ্নেয়াস্ত্র চালনা শেখানোর নৈতিকতা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

এ বিষয়ে সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) জাহিদুল ইসলাম বলেন, ঘুরতে গিয়ে শখেরবশে ভিডিওটি করা হয়েছিল। এটা খারাপ উদ্দেশ্যে করা হয়নি। এরপর ওই ভিডিও আমার ফেসবুকে দেওয়া ছিল। আমেরিকায় থাকা নিয়াজ মাহমুদ নামে একজন এতো দিন পর নেতিবাচক উদ্দেশ্যে ফেসবুকে ভিডিওটি পোস্ট দিয়েছেন।

তিনি বলেন, আমি যখন সুন্দরবন কয়রা এলাকার ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে কর্মরত ছিলাম- তখনকার ঘটনা এটি। সুন্দরবন বেড়াতে গিয়ে বাচ্চারা শখ করে পিস্তল দিয়ে গুলি করেছে। তখন এই ভিডিওটি আমার ফেসবুকে আপলোড করা হয়।

সন্তানদের নিয়ে কোন ভাবনা থেকে এমনটা করা হয়েছিল জানতে চাইলে জাহিদুল ইসলাম বলেন, শুটিং স্পট- এটুকুই। যেহেতু পাঁচ বছর ধরে ভিডিওটা নিয়ে কেউ কিছু বলেনি, নিজের ফেসবুক ওয়ালে দেওয়া মানে তো সারা দুনিয়ার জন্য। এটা তো খারাপ উদ্দেশ্যে দেওয়া নয়। কিন্তু পারিবারিক রেষারেষির কারণে নিয়াজ মাহমুদ খারাপভাবে উপস্থাপন করেছেন। উনি আমার ভয়াবহ ক্ষতি করার চেষ্টা করছেন।

বাচ্চাদের আগ্নেয়াস্ত্র চালনা শেখানো নৈতিকভাবে কতটুকু ঠিক— এমন প্রশ্নের জবাবে ম্যাজিস্ট্রেট জাহিদুল ইসলাম বলেন, এটা বাচ্চারা শখ করে করেছে। তবে এটা করা ঠিক হয়নি। সেজন্য আমি দুঃখ প্রকাশ করছি।

বর্তমানে আইনি সহায়তাবিষয়ক প্রতিষ্ঠান লিগাল অ্যাইডের চাঁপাইনবাবগঞ্জ শাখার এই কর্মকর্তার বাড়ি নড়াইলে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top