সোনার বাংলা গড়ার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর রক্তের ঋণ শোধ করতে হবে

Chakladar-27-8-2019.jpg

যশোর অফিস, প্রবর্তন| প্রকাশিতঃ ১৯:৫৬, ২৭ আগস্ট ২০১৯

শোকাবহ আগস্টের ২৬ তম দিনে যশোরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন এলাকায় অনুষ্ঠিত আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিলে অংশগ্রহণ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার।

২৬ আগষ্ট সোমবার তিনি শহরের টিএন্ডটি অফিসের সামনে, আর এন রোড, বারান্দীপাড়া বিসিএমসির সামনে ও ব্যাটারিপট্টি এলাকায় দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। পরে তিনি সাধারণ মানুষের মধ্যে মানবভোজ বিতরণ করেন। এসময় তিনি বলেন, বাঙালি জাতির শোকের মাস চলছে। এ মাসে জাতির পিতাকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয়েছিলো। পৃথিবীর সবচেয়ে নিরাপদ কারাগারের মধ্যে জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করা হয়। মূলত আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শূন্য করতেই সেদিন জিয়াউর রহমান ও স্বাধীনতা বিরোধীরা একাত্ম হয়ে এসব হতার পরিকল্পনা করে।
তিনি বলেন, কিন্তু তাদের সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হয়নি। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দলের হাল ধরে তৃণমূলকে সাথে নিয়ে আজ আরো বেশি শক্তিশালী হয়েছেন। দেশকে উন্নয়নের কাতারে তুলেছেন। এজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ২৩বার হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে। তারেক রহমানের নির্দেশে ২১ আগস্টে শেখ হাসিনার সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে যুদ্ধে ব্যবহৃত গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। আল্লাহর রহমতে তিনি প্রাণে বেঁচে গেছেন। তাই শোককে আমাদের শক্তিতে রূপান্তর করে দেশকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলায় উন্নীত করে রক্তের ঋণ পরিশোধ করতে হবে।

কর্মসূচিতে শাহীন চাকলাদারের সাথে ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা একেএম খয়রাত হোসেন, সাবেক তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রেজাউল ইসলাম, মহিলাবিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া পারভীন ডলি, উপপ্রচার সম্পাদক জিয়াউল হাসান হ্যাপী, সদস্য মশিয়ার রহমান সাগর, শাহারুল ইসলাম, যশোর পৌরসভার কাউন্সিলর মুস্তাফিজুর রহমান মোস্তা, হাজী আলমগীর কবির সুমন, যশোর শহর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ইউসুফ শাহিদ, সদর উপজেলা পূজা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দেবেন ভাস্কুর, ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন রাজীব, জেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক জাহিদ হোসেন মিলন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জুয়েল, সাবেক সহ-সভাপতি নিয়ামত উল্যাহ, সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান কবির শিপলু, সাবেক সভাপতি রওশন ইকবাল শাহী, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মোমেল হোসেন, জোয়েব হাসান সাকির ও সোয়েব হাসান আরিফ প্রমুখ।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top