খুবি কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী বক্তব্যে উপাচার্য

বঙ্গবন্ধুর আদর্শ কেবল মুখে নয়, কাজেও প্রকাশ করতে হবে

Khulna-University-Photo-1-1.jpg

খুবিতে এপিএ সম্পর্কিত কর্মকর্তাদের দু’দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করা হয়। ছবি: বিজ্ঞপ্তি।

বিজ্ঞপ্তি: বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) সম্পর্কিত খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাদের দু’দিনব্যাপী অনলাইনে প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করা হয়েছে।

বুধবার (১১ আগস্ট) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ ভবনের সম্মেলন কক্ষে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন। প্রশিক্ষণের প্রথম দিনে উপ-রেজিস্ট্রার-তদূর্ধ্ব কর্মকর্তারা অংশ নেন।

উপাচার্য বলেন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা প্রাতিষ্ঠানিক সাফল্য অর্জনে মুখ্য ভূমিকা রাখে। ব্যক্তির দক্ষতার ওপর সামষ্ঠিক অর্জন নির্ভর করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো একটি উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা ও গবেষণার সাফল্য ও গতিশীলতা অর্জনের জন্য কর্মকর্তাদের নিজ নিজ দায়িত্বশীলতা, নিষ্ঠা ও দক্ষতা অর্জন প্রয়োজন। বিশ্ববিদ্যালয়ের অভীষ্ট লক্ষ্য গুণগত শিক্ষা অর্জন করতে হলে কর্মকর্তাদের দক্ষতার সীমা বাড়াতে হবে। প্রশিক্ষণ এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তিনি আগামী ৭ কর্মদিবসের মধ্যে পেন্ডিং ফাইলের কাজ শেষ করার নির্দেশনা দেন।

তিনি বলেন, দেশপ্রেম, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ কেবল মুখে বললেই চলবে না তা কাজেও প্রকাশ করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অন্তরে ধারণ করতে হবে এবং যথাযথভাবে তা বাস্তবায়নে নিষ্ঠার সাথে কাজ করতে হবে। তবেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার কাজ বাস্তবায়িত হবে। বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তি দক্ষতা অর্জন শুদ্ধাচার কৌশল বাস্তবায়নের লক্ষ্য অর্জনে সহায়ক হবে। তিনি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কর্মকর্তাদের আরও দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে নিবেদিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান এবং এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে অর্জিত জ্ঞান কাজে লাগানোর ওপর তাগিদ দেন। উপাচার্য তার বক্তব্যের শুরুতে পনেরই আগস্টের কালরাতে ঘৃণিত খুনিদের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের শিকার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোসাম্মাৎ হোসনে আরা, ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ ও ইউজিসির সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ড. ফেরদৌস জামান। সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিইটিএল’র পরিচালক প্রফেসর ড. ফিরোজ আহমদ ও আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. মোঃ সারওয়ার জাহান। সভাপতিত্ব করেন জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিন, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় এপিএ টিমের সভাপতি প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস।

পরে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন ইউজিসি’র সদস্য ও এপিএ কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. মোঃ আবু তাহের, ইউজিসি’র এপিএ ফোকালপার্সন মোঃ গোলাম দস্তগীর, সরকারের আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব আর. এইচ. এম আলাওল কবির। প্রশিক্ষণ পর্বটি সঞ্চালনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-রেজিস্ট্রার ও ফোকাল পয়েন্ট, এপিএ এস এম আবু নাসের ফারুক।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top