অস্ট্রেলিয়াকে ১০৫ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ

251baca274c13c84038ebc1e5829b92c-610e8f0921902.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট: জিম্বাবুয়ে থেকে দারুণ একটা সিরিজ কাটিয়ে এসেছেন সৌম্য সরকার। কই সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখবেন? তা না, এই সিরিজের চার ম্যাচে ব্যর্থতার বৃত্ত ভাঙতেই পারলেন না। আজ আউট হয়েছেন ৮ রান করে। সৌম্যের মতো বাকি ব্যাটসম্যানরাও ছিলেন আসা যাওয়ার মিছিলে। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় মিরপুরে চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়াকে ১০৯ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ।

আগের তিন ম্যাচে ওপেনিং জুটি বেশিক্ষণ টেকেনি। তবে আজ পাওয়ার প্লের প্রথম ৩ ওভারে ২২ রান তুলে ভালো শুরুর আশা জাগিয়েছিলেন দুই ওপেনার সৌম্য-নাঈম। তা ওই আশা পর্যন্তই। চতুর্থ ওভারে পেসার জশ হ্যাজেলউডের বলে অ্যালেক্স ক্যারির হাতে ক্যাচ দিয়ে সৌম্যের বিদায়ে ভাঙে ২৪ রানের ওপেনিং জুটি। আগের তিন ম্যাচে রান করতে হাঁসফাঁস করেছেন আরেক ওপেনার নাঈম। আজ হ্যাজেলউডের প্রথম ওভারে দুটি চার মেরে ছন্দে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। উইকেটেও ছিলেন ইনিংসের ১৫তম ওভার পর্যন্ত।

তবে উইকেটে থাকাটা কাজে লাগাতে পারেনি নাঈম। হ্যাজেলউডকে মারা প্রথম দুই চারের পর আর একবারের জন্যও ছন্দ খুঁজে পাননি। মিচেল সোয়েপসনের বলে উইকেটকিপার ম্যাথু ওয়েডের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ২৮ রান করে। এ জন্য অবশ্য নাঈমকে খেলতে হয়েছে ৩৬ বল। সিরিজে প্রথমবারের মতো খেলছেন লেগ স্পিনার সোয়েপসন। টানা দুই বলে ফিরিয়েছেন আগের ম্যাচের ম্যাচ সেরা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও নুরুল হাসান সোহানকে। আজ অস্ট্রেলিয়ার সেরা বোলারও এই লেগ স্পিনার। চার ওভারে ১৪ রান দিয়ে উইকেট নিয়েছেন ৩টি।

দুই দলের বোলারদের জন্য দারুণ একটি সিরিজ যাচ্ছে। সিরিজে এখনো একটি ম্যাচ জিততে না পারলেও ব্যাটসম্যানদের তুলনায় ভালো করেছেন অস্ট্রেলিয়ান বোলাররা। আজ অবশ্য আরেক ধাপ এগিয়ে ছিলেন হ্যাজেলউড-অ্যাগাররা। প্রথম তিন ম্যাচের ধারাবাহিতা ধরে রেখে রান করতে সংগ্রাম করতে হয়েছে সাকিব-আফিফদের। অস্ট্রেলিয়ান পেসার আর স্পিনারদের দারুণ সমন্বয়ে ১০০ রানের নিচে আটকা পড়ার শঙ্কায় ছিল বাংলাদেশের স্কোর। শেষ দিকে অলরাউন্ডার মেহেদী হাসানের ১৬ বলে ২৩ রানের ঝোড়ো ইনিংসে ১০৮ রান করে বাংলাদেশ।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top