কুমিল্লা থেকে ঢাকার বাস ভাড়া বেড়েছে ৫০-১০০ টাকা

cumilla02-20220806134139.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে আন্তঃজেলা বাসগুলোর ভাড়া বেড়েছে। শনিবার (৬ আগস্ট) সকালে কুমিল্লা নগরীর জাঙ্গালিয়া বাস টার্মিনালে গিয়ে ঢাকাগামী বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করতে দেখা গেছে।

ঢাকা-কুমিল্লা-ঢাকা রুটের বাসগুলো ভাড়া বৃদ্ধি করেছে সবচেয়ে বেশি। কুমিল্লা থেকে ঢাকাগামী বাসগুলোর আগের ভাড়া ছিল ১৮০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা। জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির অজুহাতে সেই ভাড়া এখন সর্বনিম্ন ২২০ টাকা থেকে ৪৫০ টাকা করে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ রুটে চলাচলকারী এশিয়া লাইন, এশিয়া এয়ারকন, রয়েল কোচ, মায়ামী সার্ভিস, তিশা প্লাসসহ সবগুলো বাসের ভাড়ায় তারতম্য দেখা দিয়েছে। এশিয়া লাইনে ৩০০, এশিয়া এয়ারকনে ৪০০, রয়েল কোচ (নন এসি) ৩০০, এসি (৪০০) মায়ামী সার্ভিস ৪০০-৪৫০ টাকা, তিশা প্লাসে আগের ভাড়া ১৮০ টাকা থাকলেও ৪০ টাকা বৃদ্ধি করে তা ২২০ টাকা করা হয়েছে। এছাড়াও প্রিন্স সৌদিয়া পরিবহনে ২৫০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। আগে এর ভাড়া ছিল ১৮০-২০০ টাকা।

আরও পড়ুন : রুই মাছের দোপেঁয়াজা তৈরির রেসিপি

ঢাকা থেকে কুমিল্লায় আসা এশিয়া লাইনের যাত্রী সোহেল আহমেদ বলেন, ভোর ৬টায় কুমিল্লার বাসে উঠেছি। কুমিল্লায় পৌঁছেছি সকাল ৮টার দিকে। আগে ২৫০ টাকা ছিল ভাড়া, আজকে ৩০০ টাকা দিয়ে আসতে হয়েছে। যেখানে তেলের দাম লিটারে বেড়েছে ৫০ টাকা, সেই সুযোগে বাসের মালিকরা সিট প্রতি ৫০ টাকা ভাড়া বাড়িয়েছেন। সরকারেরও লাভ, বাস মালিকদেরও লাভ, আমাদের জনগণের মরণ।

এশিয়া এয়ারকন বাসের সুপারভাইজার তৌহিদ বলেন, আগে এশিয়া এয়ারকনের ভাড়া ছিল ২৫০ টাকা। এখন ৫০ টাকা বৃদ্ধি করে ৩০০ টাকা করা হয়েছে।মায়ামী সার্ভিসের তত্ত্বাবধায়ক অপূর্ব নাজমুল বলেন, ঢাকা থেকে কুমিল্লা এবং কুমিল্লা থেকে ঢাকা যেতে মায়ামী সার্ভিসের ইকোনমি সিট ৪০০ এবং প্লাটিনাম সিটের ভাড়া ৪৫০ টাকা করা হয়েছে।

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে এ ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে বলে জানান তিনি।তবে ঢাকাগামী কুমিল্লার বাসগুলোতে ভাড়া বৃদ্ধি পেলেও বৃদ্ধি পায়নি কুমিল্লা-চাঁদপুরগামী বাসের ভাড়া। আগে কুমিল্লা থেকে চাঁদপুরের ভাড়া ৪০ টাকা রাখা হতো। আজও ৪০ টাকাই রাখা হচ্ছে। বোগদাদ সার্ভিসের সুপারভাইজার নোমান হোসেন বলেন, আজ পর্যন্ত ভাড়া আগেরটাই রয়েছে।

তবে আগামীকাল থেকে ভাড়া বাড়তে পারে। এ রুটে চলাচলকারী রিল্যাক্স পরিবহনেও একই ভাড়া নেওয়া হচ্ছে। কুমিল্লা থেকে নোয়াখালীর উপকূল এক্সপ্রেসের ভাড়াও বৃদ্ধি করা হয়নি। আগে কুমিল্লার জাঙ্গালিয়া থেকে ১৫৬ টাকা ভাড়া ছিল। আজও সেই ভাড়াই নেওয়া হচ্ছে। উপকূল সার্ভিসের টিকিট কাউন্টারের পরিদর্শক আজহারুল হক বলেন, সরকার ভাড়া বাড়ালে আমরাও ভাড়া বাড়াব।

এর আগে পূর্বের ভাড়াই বহাল থাকবে।কুমিল্লা বাস মালিক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আলী বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় কিছু কিছু বাসের ভাড়া বাড়ানোর খবর শুনেছি। আমরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত জানাব। যাত্রীরা আপত্তি জানালে বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top