করোনা টিকা নেওয়ার পর দক্ষিণ আফ্রিকায় এক ব্যক্তির মৃত্যু

corona-vaccine-68-20220805134921.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : করোনাভাইরাস প্রতিরোধে টিকা নেওয়ার পর দক্ষিণ আফ্রিকায় এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুর আগে ওই ব্যক্তি জনসন অ্যান্ড জনসনের করোনা টিকা নিয়েছিলেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষও ওই ব্যক্তির মৃত্যু ও টিকা নেওয়ার মধ্যে যোগসূত্র থাকার কথা নিশ্চিত করেছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) রাতে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার একজন ব্যক্তির মৃত্যু এবং জনসন অ্যান্ড জনসনের ভ্যাকসিনের মধ্যে একটি যোগসূত্রের কথা জানিয়েছে। আফ্রিকার এই দেশটিতে এই প্রথম টিকা নেওয়ার সঙ্গে মৃত্যুর যোগসূত্র থাকার কথা জানানো হলো।

দক্ষিণ আফ্রিকার জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানীরা এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, সম্প্রতি এক ব্যক্তিকে জনসন অ্যান্ড জনসনের জ্যানসেন ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। টিকা দেওয়ার পরপরই ওই ব্যক্তি বিরল স্নায়ুবিক ব্যাধি গুইলেন-বারে সিন্ড্রোমে আক্রান্ত হন। পরে ওই ব্যক্তিকে ভেন্টিলেটরে রাখা হলেও একপর্যায়ে তিনি মারা যান।

সংবাদ সম্মেলনে অধ্যাপক হ্যানেলি মায়ার বলেন, ‘ওই ব্যক্তির অসুস্থতার সময় গুইলেন-বারে সিন্ড্রোমে (জিবিএস) আক্রান্ত হওয়ার অন্য কোনো কারণ চিহ্নিত করা যায়নি।’

অবশ্য টিকা নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিটির বয়স এবং অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য গোপনীয়তার কারণে প্রকাশ করা হয়নি।অন্যদিকে জনসন অ্যান্ড জনসন এক বিবৃতিতে বলেছে, বিভিন্ন ভ্যাকসিন নেওয়া এবং অন্যান্য ওষুধের সেবনের সঙ্গে জিবিএস হওয়ার ঝুঁকি যুক্ত থাকে এবং সার্স-কোভ-২ এর কারণেও গুইলেন-বারে সিন্ড্রোমে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে। মূলত সার্স-কোভ-২ ভাইরাসই কোভিড-১৯ সৃষ্টি করে।

সংস্থাটি আরও বলেছে, এই বিরল ঘটনার লক্ষণ ও উপসর্গগুলোকে দ্রুত শনাক্ত করা এবং কার্যকরভাবে যেন চিকিৎসা করা যায় তা নিশ্চিত করার জন্য সচেতনতা বৃদ্ধিকে দৃঢ়ভাবে সমর্থন করে তারা।

এর আগে গত জুলাই মাসে জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকার বিষয়ে একটি তথ্যপত্রে সতর্কতার কথা জানায় মার্কিন কর্তৃপক্ষ। সেখানে বলা হয়, জনসন অ্যান্ড জনসনের করোনা টিকা নেওয়ার ছয় সপ্তাহের মধ্যে জিবিএস’এ আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যাওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। সেসময় ১০০ জন টিকা গ্রহীতার জিবিএস’এ আক্রান্ত হওয়ার তথ্য জানিয়ে বলা হয়, তাদের মধ্যে ৯৫ জনের অবস্থা ছিল গুরুতর এবং একজন মারা গিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন : মানুষ চিনতে ভুল হয়েছে: শ্রাবন্তী

দক্ষিণ আফ্রিকান হেলথ প্রোডাক্টস রেগুলেটরি অথরিটির (এসএএইচপিআরএ) প্রধান নির্বাহী বোইটুমেলো সেমেতে-মাকোকোটলেলা সাংবাদিকদের বলেন, ‘টিকা দেওয়ার সুবিধা এখনও ঝুঁকির চেয়ে অনেক বেশি। আমরা জ্যানসেন ভ্যাকসিনের প্রায় ৯০ লাখ (ডোজ) প্রয়োগ করেছি এবং টিকা নেওয়ার পর কারও জিবিএস’এ আক্রান্ত হওয়ার খবর এই প্রথম দেখা গেল।’

রয়টার্স বলছে, ইউরোপের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা গত বছর জিবিএসকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড ভ্যাকসিনের সম্ভাব্য পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া হিসাবে যুক্ত করেছিল। জনসন অ্যান্ড জনসনের মতো এই টিকা নির্মাতা সংস্থাটিও ভাইরাল ভেক্টর প্রযুক্তি ব্যবহার করে থাকে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top