নুরে আলম-রহিমের হত্যার প্রতিশোধ নেব: মির্জা ফখরুল

bnp-janaja-20220804142228.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, পিতার কাঁধে পুত্রের লাশ—এর চেয়ে যন্ত্রণার আর কিছু নাই। আমাদের ছেলে নুরে আলম ভোলা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি, তাকে গুলি করে হত্যা করেছে এই ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগ সরকারের পুলিশ বাহিনী।গুলি করে হত্যা করেছে স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী আব্দুর রহিমকে। আরও ১৯ জন ঢাকা ও বরিশাল হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দুপুরে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে ভোলা জেলা ছাত্রদল সভাপতি নূরে আলমের জানাজার আগে এসব কথা বলেন বিএনপির মহাসচিব।

তিনি বলেন, আজকে নতুন নয়, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর একদলীয় শাসন পোক্ত করার জন্য ১৫ বছর ধরে ৬শ’ নেতাকর্মীকে গুম করেছে। ৩৫ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে। এখন আর ক্রন্দন নয়, আমাদের জেগে উঠতে হবে। এই ভয়াবহ কর্তৃত্ববাদী জুলুম নির্যাতনকারী সরকারের হাত থেকে এই জাতিকে মুক্ত করতে হবে। এজন্য প্রয়োজন সমগ্র জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়া। শান্তিপূর্ণভাবে গণআন্দোলন শুরু করে নুরে আলম এবং রহিমের হত্যার প্রতিশোধ নেবো।

আরও পড়ুন : তামিলনাড়ু থেকে বরিশালে এসেও প্রেমকান্তের প্রেম অধরা

নুরে আলম ও আব্দুর রহিম মৃত্যুর প্রতিবাদে কর্মসূচি ঘোষণা করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আগামী ৫ থেকে ৭ আগস্ট পর্যন্ত শোক পালন করার জন্য বিএনপি সারা দেশে দলীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখবে, কালো পতাকা উত্তোলন করবে। ৬ আগস্ট ছাত্রদল ঢাকায় সমাবেশ করবে, ৭ আগস্ট কৃষক দল সমাবেশ করবে, ৮ আগস্ট যুবদলের উদ্যোগে সমাবেশ ও ১০ আগস্ট শ্রমিক দলের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ হবে।

গত ৩১ জুলাই সারা দেশে লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে পুলিশের গুলিতে আহত হন ভোলা জেলা ছাতদল সভাপতি নুরে আলম। পরে তাকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (৩ আগস্ট) তিনি মারা যান।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top