কলেরা টিকার দ্বিতীয় ডোজ শুরু আজ

vaccine-bg-20220801172124-20220803092757.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : কলেরা সংক্রমণ প্রতিরোধে আজ (৩ আগস্ট) থেকে রাজধানীর পাঁচটি এলাকায় দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। এলাকাগুলো হচ্ছে- যাত্রাবাড়ী, সবুজবাগ, দক্ষিণখান, মিরপুর ও মোহাম্মদপুর।

আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআর,বি) জানিয়েছে, আজ থেকে ১০ আগস্ট পর্যন্ত সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত দ্বিতীয়-ডোজ কলেরা টিকাদান কর্মসূচি শুরু করা হচ্ছে। তবে মাঝে শুক্রবার (৫ আগস্ট) ও মঙ্গলবার (আশুরার দিন-৯ আগস্ট) টিকা কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

আইসিডিডিআর,বি জানায়, ঢাকার যাত্রাবাড়ী, সবুজবাগ, দক্ষিণখান, মিরপুর ও মোহাম্মদপুরে প্রথম ডোজ কলেরা টিকা গ্রহণকারী ২৩ লাখ ৬৫ হাজার ৫৮৫ জন অধিবাসীকে দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়া হবে। যারা ২৬ জুন থেকে ২ জুলাই পর্যন্ত প্রথম ডোজ কলেরা টিকা গ্রহণ করেছেন, তারা স্ব স্ব টিকাদান কেন্দ্রে টিকাদান কার্ড প্রদর্শন করে দ্বিতীয় ডোজ টিকা গ্রহণ করতে পারবেন।

এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম জানান, ইতোমধ্যেই যারা টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন, কেবল তারাই দ্বিতীয় ডোজ পাবেন। তবে গর্ভবতী নারী এবং যারা বিগত ১৪ দিনের মধ্যে অন্য কোনো টিকা নিয়েছেন, তারা টিকা নিতে পারবেন না। এই টিকা নেওয়ার ১৪ দিনের মধ্যে অন্য কোনো টিকা নেওয়া যাবে না।

দক্ষিণ কোরিয়ার ইউবায়োলোজিক্স কো. লিমিটেডের তৈরি ইউভিকল প্লাস নামের কলেরার টিকা এক বছর থেকে তদূর্ধ্ব বয়সীদের দেওয়া হচ্ছে। এই টিকা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত।

আরও পড়ুন : ৮০ ভাগ মানুষকে চিকিৎসা দেয় পল্লি চিকিৎসকরা : ডা. এনাম

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধানে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের সার্বিক সহায়তায় আইসিডিডিআর,বি কলেরার টিকাদান কর্মসূচি পরিচালনা করছে। এই কর্মসূচিতে আরও সহায়তা করছে জাতীয় সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ইউনিসেফ, আন্তর্জাতিক রেডক্রস ও বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও এমএসএফ। দ্য ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্স, গ্যাভির আর্থিক সহায়তায় এই টিকাদান উদ্যোগ পরিচালিত হচ্ছে।

প্রতিষ্ঠানটি জানায়, প্রায় ৭০০টি টিকাদান কেন্দ্রের মাধ্যমে এই কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সতর্কতা অবলম্বন করে এসব এলাকার অধিবাসীকে কলেরার টিকা গ্রহণ করে এই রোগ প্রতিরোধ করার জন্য আহ্বান করা যাচ্ছে এবং টিকাদান কার্যক্রমকে সহায়তা করতে অনুরোধ করা হচ্ছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top