পুতিনকে একাকী কক্ষে অপেক্ষায় রাখলেন এরদোয়ান, ভাইরাল ভিডিও

download-12-1.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : ইরান সফর করছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। সেখানে এই দুই রাষ্ট্রনেতা একটি বৈঠক করেছেন। কিন্তু বৈঠকের আগে পুতিনকে প্রায় ৫০ সেকেন্ড ধরে এরদোয়ানের জন্য অপেক্ষা করতে দেখা যায় একটি ভিডিওতে। আর এই ভিডিওটি ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে ছড়িয়েছে। যেখানে এরদোয়ানের জন্য অপেক্ষার সময় প্রেসিডেন্ট পুতিনকে কিছুটা অস্বস্তিও বোধ করতে দেখা যায়।

ভিডিওতে দেখা যায়, তেহরানের একটি ভবনের কক্ষে বৈঠকের জন্য প্রবেশ করছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। কিন্তু তাকে অভ্যর্থনা জানানোর জন্য সেখানে কেউই উপস্থিত নেই। রুশ নেতা তার চেয়ার এবং দুই দেশের পতাকার সামনে ৫০ সেকেন্ড ধরে দাঁড়িয়ে আছেন। এ সময় তাকে কখনও দুই হাত পেটের নিচে আঁকড়ে ধরে থাকতে, কখনও চিবানোর মত করে মুখ নড়াচড়া করতে এবং এরদোয়ানের উপস্থিতির আগে তার অবস্থানও পরিবর্তন করতে দেখা যায়।

এমন সময়ে সেই কক্ষে প্রবেশ করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। তখন পুতিনকে কিছুটা হাস্যোজ্জ্বল এবং উভয় হাত প্রসারিত করে এরদোয়ানের দিকে এগিয়ে গিয়ে হাত মেলাতে দেখা যায়। এরদোয়ানও হাস্যোজ্জ্বল চেহারায় পুতিনকে জিজ্ঞাসা করেন, হ্যালো, কেমন আছেন, ভালো?

বিশ্ব নেতাদের অপেক্ষায় রাখার জন্য পুতিনের বেশ পরিচিতি আছে। আর এই অপেক্ষা অনেক সময় ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরেও চলেছে। তুরস্কের গণমাধ্যম অবশ্য ২০২০ সালে মস্কোর একটি বৈঠকের ঘটনা সামনে এনে বলেছে, সম্ভবত প্রতিশোধ নিলেন এরদোয়ান। ওই বছর মস্কোতে বৈঠকে বসার আগে এরদোয়ানকে প্রায় দুই মিনিট ধরে অপেক্ষায় রেখেছিলেন পুতিন।

বুধবার তুরস্কের সংবাদমাধ্যম টিটোয়েন্টিফোর এই ঘটনার সংবাদের শিরোনাম করেছে, এটা কি প্রতিশোধ ছিল? অনলাইনে এই ভিডিও ব্যাপক আলোড়ন তুলেছে।

মধ্যপ্রাচ্যের সংবাদ সংস্থা ন্যাশনাল নিউজের জ্যেষ্ঠ সংবাদদাতা জয়সি করিম এক টুইটে বলেছেন, এরদোয়ান ৫০ সেকেন্ডের জন্য পুতিনকে যে অপেক্ষা করতে বাধ্য করেছিলেন; ক্যামেরার সামনে পুতিনের পরিশ্রান্ত হয়ে যাওয়ার সেই ঘটনা বলছে, ইউক্রেন আগ্রাসনে পরিস্থিতি কতটা পাল্টে গেছে।

গত ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসন শুরুর পর হাজার হাজার মানুষের প্রাণহানি এবং লাখ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। আর এই যুদ্ধের কারণে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ রপ্তানিকারক ইউক্রেনের গম ও অন্যান্য শস্য রপ্তানি বাধাগ্রস্ত হচ্ছে; যা বিশ্বজুড়ে খাদ্যসংকটের আশঙ্কা সৃষ্টি করছে।

তেহরানে মঙ্গলবার এরদোয়ানের সাথে বৈঠকে পুতিন বলেছেন, ইউক্রেন থেকে শস্য রপ্তানির বিষয়ে আলোচনায় ‘অগ্রগতি’ হয়েছে। এরদোয়ান এবং ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির সাথে বৈঠকের পর রুশ এই নেতা সাংবাদিকদের বলেছেন, যেকোনও চুক্তি পশ্চিমাদের কিছু ছাড় দেওয়ার ইচ্ছার ওপর নির্ভর করছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top