খুলনায় বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত

11-07-19-6.jpg

বিজ্ঞপ্তি, Prabartan | প্রকাশিতঃ ১৭:৫৪, ১১ জুলাই ২০১৯

‘জনসংখ্যা ও উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের ২৫ বছর: প্রতিশ্রুতির দ্রুত বাস্তবায়ন’ এ প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা বিশ্বের ন্যায় খুলনায় আজ (বৃহস্পতিবার) বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত হয়। দিবসটি উপলক্ষে সকালে খুলনা অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার দেশের মানুষের জীবন-মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। পরিকল্পিত পরিবার গঠনের মাধ্যমে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার রোধ করে দারিদ্র্য বিমোচনসহ শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের হার বৃদ্ধিতে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে সরকার। মাতৃ ও শিশুমৃত্যুর হার হ্রাস পেয়েছে এবং এই সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাউথ-সাউথ অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে। জনসংখ্যাকে জনসম্পদে পরিণত করতে পারলে দেশের আরো উন্নতি হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রতি ৬ হাজার জনগোষ্ঠীর জন্য একটি করে কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপনের মাধ্যমে গ্রামীণ দরিদ্র জনগোষ্ঠীর দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এই ক্লিনিকে বিনামূল্যে ৩৩ রকম ওষুধ বিতরণ করা হচ্ছে। পরিকল্পিত পরিবার একটি দেশের উন্নয়নের অন্যতম পূর্বশর্ত।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনার বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া, খুলনা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডাঃ রাশেদা সুলতানা, সিভিল সার্জন ডাঃ এ এসএম আব্দুর রাজ্জাক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জিয়াউর রহমান এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উপপরিচালক ডাঃ সৈয়দ মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন। খুলনা বিভাগীয় পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপপরিচালক মোঃ আব্দুল আলীম এতে সভাপতিত্ব করেন। স্বাগত জানান খুলনা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডাঃ এএসএম শামসুল আহসান। খুলনা বিভাগীয় পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর এ অনুষ্ঠানের আয়োজনে করে।

আলোচনা শেষে প্রধান অতিথি পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমে বিশেষ অবদানের জন্য খুলনা বিভাগের ১০ জন শ্রেষ্ঠ কর্মী ও প্রতিষ্ঠান এবং জেলা পর্যায়ে আট জন শ্রেষ্ঠ কর্মী ও প্রতিষ্ঠানকে ক্রেস্ট ও সনদপত্র প্রদান করেন।

এর আগে নগরীর শহিদ হাদিস পার্ক থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে অফিসার্স ক্লাবে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top