উত্তর আফ্রিকায় নজর রাশিয়ার, বাড়াচ্ছে উপস্থিতি

putin-20220628172437.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : উত্তর আফ্রিকার দেশগুলোতে রাশিয়ার উপস্থিতি বাড়ছে বলে মন্তব্য করেছেন স্পেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসে ম্যানুয়েল আলবারেস। তিনি বলেছেন, মস্কোর উপস্থিতি এমন এক সময় বাড়ছে যখন ওই অঞ্চলে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা ও জঙ্গি তৎপরতার বিস্তার ঘটছে।

আফ্রিকা ঘিরে রাশিয়ার পররাষ্ট্রনীতির এমন পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে বলে মঙ্গলবার জানিয়েছেন তিনি। স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোর সম্মেলন শুরুর আগে অ্যান্টেনা থ্রি টেলিভিশনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে হোসে ম্যানুয়েল বলেছেন, ‘আফ্রিকা এবং উত্তর আফ্রিকার দেশগুলোতে রাশিয়ার উপস্থিতি ক্রমবর্ধমান হারে বাড়ছে।

স্পেনের সরকারি জ্যেষ্ঠ দুই কর্মকর্তা এবং দুটি কূটনৈতিক সূত্র রয়টার্সকে বলেছে, ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের ফলে ইউরোপ থেকে অভিবাসন মোকাবিলায় সহায়তার জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং ন্যাটোর কাছে তদবির করছে স্পেন। আর এ জন্য আফ্রিকা ঘিরে  স্পেনের পররাষ্ট্রনীতিও পরিবর্তন করা হচ্ছে।

হোসে ম্যানুয়েল আলবারেস বলেছেন, বিশ্ব সন্ত্রাসবাদের কেন্দ্রস্থল হল সাহেল অঞ্চল। এটি এমন এক এলাকা যেখানে অত্যন্ত দুর্বল প্রতিষ্ঠান, অধিকতর সামরিক জান্তা, খাদ্য সংকট এবং অভিবাসীদের চলাফেরা রয়েছে।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, আফ্রিকার দিকে নজর দেওয়ার জন্য ন্যাটোর শীর্ষ সম্মেলনের সুবিধা নিতে চায় স্পেন। সম্মেলনে অভিবাসন সমস্যাসহ গোয়েন্দা তথ্য পরস্পরের মধ্যে ভাগাভাগি বৃদ্ধির বিষয়ে অনুরোধ করবে স্পেন।

আলবারেস বলেছেন, সাহেল অঞ্চল ছাড়াও দক্ষিণাঞ্চলের সাহারা মরুভূমির পাশে আলজেরিয়ায় রাশিয়ার সৈন্যদের ঘাঁটি আছে কিনা তা তিনি জানেন না। চলতি মাসেই কূটনৈতিক বিবাদের জেরে রাশিয়ার সাথে বন্ধুত্বমূলক একটি চুক্তি স্থগিত করেছে আলজেরিয়া

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top