ভোমরা থেকে পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকা, ট্রাকপ্রতি বেড়েছে ৪২০ টাকা

shatkhira1-20220627192936.jpg

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : পদ্মা সেতু দিয়ে রাজধানীতে পণ্য পরিবহনে সুবিধা বেড়েছে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দরের ব্যবসায়ীদের। ফেরিঘাট দিয়ে যাওয়ার থেকে পদ্মা সেতু দিয়ে রাজধানীতে পৌঁছাতে পথ কমেছে ৭০ কিলোমিটার। এতে পরিবহন খরচ কমেছে। তবে টোল খরচের পরিমাণ বাড়ায় ট্রাক প্রতি খরচ বেশি পড়ছে ৪২০ টাকা।

সাতক্ষীরা শহরের পলাশপোল এলাকার আব্দুল সাদেকের ছেলে ট্রাক চালক আবুল বাসার। ভোমরা স্থল বন্দরের পণ্য পরিবহনের কাজ করেন তিনি। রোববার (২৬ জুন) ভারত থেকে আমদানি করা এক ট্রাক তুলা ভোমরা বন্দর থেকে রাজধানীর গাউসিয়া এলাকায় নিয়ে যান।

পণ্যবাহী ট্রাক নিয়ে দৌলদিয়া-পাটুরিয়া ফেরিঘাট ও পদ্মা সেতু দিয়ে রাজধানীতে পৌঁছানোর বাস্তব চিত্র বর্ণনা করেন ট্রাকচালক আবুল বাসার।

তিনি বলেন, ভোমরা থেকে ফেরিঘাট হয়ে রাজধানীতে যাওয়ার থেকে পদ্মা সেতু হয়ে যাওয়ার পথ কমেছে ৭০ কিলোমিটার। এতে ট্রাকের তেল খরচ সাশ্রয় হচ্ছে ১৭ লিটার। প্রতি লিটার তেলের মূল্য ৮০ টাকা হিসেবে মোট দাঁড়ায় ১৩৬০ টাকা।

ফেরিঘাট দিয়ে সড়কে খরচ ছিল কামারখালি ব্রিজের টোল ২৫০ টাকা আর ফেরি পারাপারের জন্য দিতে হতো ১৫০০ টাকা, ঘাটে পুলিশের চাঁদা ছিল ৩০-৫০ টাকা। সব মিলিয়ে সড়কে খরচ দাঁড়াত ১৮০০ টাকা। আর কোনো খরচ ছিল না।

আবুল বাসার আরও জানান, রোববার রাত ১টার সময় তুলা নামিয়ে ট্রাক নিয়ে ঢাকা থেকে রওনা হয়েছি। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের চাঁদা ১৫০ টাকা, নারায়নগঞ্জ পৌরসভার চাঁদা ১০০ টাকা, পোস্তগোলা শ্রমিক ইউনিয়নের চাঁদা ১০০ টাকা, ভাঙা এলাকায় হাইওয়ে পুলিশের চাঁদা ১০০ টাকা, ফকিরহাট পুলিশের চাঁদা দিয়েছি ১০০ টাকা।

এ ছাড়া পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে টোল ২১০০ টাকা, পোস্তগোলা ব্রিজের টোল ২৪০ টাকা, আড়িয়াল খাঁ ব্রিজের টোল ১৭০ টাকা, ধ্বলেশ্বর ব্রিজের টোল ১৮০ টাকা, মোল্লারহাট ব্রিজের টোল ১৫০ টাকা ও রুপসা সেতুর টোল দিয়েছি ১৮০ টাকা। সব মিলিয়ে খরচ হয়েছে ৩৫৭০ টাকা।

ট্রাক চালকের দেওয়া হিসেব পর্যালোচনা করে দেখা যায়, ফেরিঘাট দিয়ে একটি পণ্যবাহি ট্রাকে রাজধানীতে যাতায়াতে সড়কে খরচ ১৮০০ টাকা। অন্যদিকে পদ্মা সেতু হয়ে যাতায়াতে খরচ দাঁড়িয়েছে ৩৫৭০ টাকা। তবে পদ্মা সেতু হয়ে যাতায়াতে ট্রাকের তেল সাশ্রয় হচ্ছে ১৩৮০ টাকার। তেল খরচ সাশ্রয় ও ফেরিঘাট সড়কের খরচ একত্রে করলে হয় ৩১৫০ টাকা। পদ্মা সেতুর সড়কে খরচ ৩৫৭০ টাকা। ট্রাক প্রতি বেশি খরচ পড়ছে ৪২০ টাকা।

তিনি বলেন, ঘেরিঘাট দিয়ে যাতায়াতের থেকে পদ্মা সেতু দিয়ে যাতায়াতে খরচ বেশি পড়ছে। তবে সময় কম লাগছে ও রাস্তা ভালো। দ্রুত যাতায়াত করতে পারছি, এতে অনেক উপকার হচ্ছে। ফেরিঘাট দিয়ে যাতায়াত করলে নির্দিষ্ট কোনো সময়সীমা ছিল না, কখন নদী পারা হতে পারব। অনেক সময় ১-২ দিন লেগে যেত। এখন খরচ বেশি হলেও সেই অনিশ্চয়তা কেটেছে।

ভোমরা স্থল বন্দরের সি অ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ আলম বলেন, পদ্মা সেতু হয়ে ব্যবসায়ীদের ট্রাক পরিবহনে খরচ বেড়েছে। তবে এতে আমাদের কোনো সমস্যা নেই। ব্যবসায়ীদের সময় বেঁচেছে। আগে একজন ব্যবসায়ী রাজধানীর উদ্দেশ্যে ট্রাক পাঠিয়ে দুঃশ্চিন্তায় পড়তেন পণ্যবাহী ট্রাকটি কখন ঢাকায় পৌঁছাবে। ফল থাকলে গাড়িতে নষ্ট হয়ে যেতো। তবে এখন ব্যবসায়ীদের সেই দুঃশ্চিন্তা কেটে গেছে। এখন একটু খরচ বেশি পড়লেও কোনো অসুবিধা নেই ব্যবসায়ীদের।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতুতে যাতায়াতের প্রথম দিনে রোববার ৩৫টি ট্রাক পদ্মা সেতু হয়ে রাজধানীতে পৌঁছেছে। আজ (সোমবার) গেছে ৫৫টি ট্রাক। এসব ট্রাকে শুকনা মরিচ, পাথর, ফল ও কসমেটিকস আইটেমের সিরামিক ম্যাটেরিয়ালস রয়েছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top