খুলনার রেড জোনে লকডাউন না মানায় ২৭ জনকে জরিমানা

105921356_1931870953779152_7553277951169961085_n.jpg

খুলনার রেড জোনে লকডাউন না মানায় ২৭ জনকে ২৬ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানাকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

শুক্রবার (২৬ জুন) সকাল থেকে খুলনা মহানগরীর ১৭ ও ২৪ নং ওয়ার্ড এলাকায় একাধিক ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে তাদের জরিমানা করা হয়। আদালতসমূহ পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাপসী রাবেয়া, মোঃ তাহমিদুল ইসলাম, দেবাশীষ বসাক এবং নূরী তাসমিন ঊর্মি। অভিযানে সহযোগিতা করেন আনসার ও পুলিশের সদস্যবৃন্দ।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দেবাশীষ বসাক জানান, সম্প্রতি ১৭ ও ২৪ নং ওয়ার্ডে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক জারিকৃত গণবিজ্ঞপ্তি এর আদেশসমূহ যথাযথভাবে প্রতিপালিত হচ্ছে কিনা তা তদারকি করতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়।

এসময় মাস্ক পরিধান না করাসহ স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করা, গণবিজ্ঞপ্তির আদেশ লঙ্ঘন করে মোটসাইকেলে একাধিক ব্যক্তি আরোহন, সরকার নির্দেশিত সময়ের পরেও দোকান-পাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখা এবং রেড জোন ঘোষিত এলাকায় গণ বিজ্ঞপ্তির আদেশ অমান্য করার দায়ে ২৭ টি মামলায় ২৭ জনকে ২৬ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

উল্লেখ্য, খুলনায় করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সিটি কর্পোরেশনের ১৭ ও ২৪ নম্বর ওয়ার্ড এবং রূপসার আইচগাতি ইউনিয়নকে রেডজোন ঘোষণা করেছে। ওই সব এলাকায় ২৫ জুন দিবাগত রাত ১১টা ৫৯ মিনিট থেকে ১৬ জুলাই দিবাগত রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত মোট ২১ দিনের লকডাউন শুরু হয়েছে।

এসব রেড জোন এলাকায় বিধি নিষেধ জারি করে বুধবার (২৩ জুন) খুলনার জেলা ম্যাজিস্ট্রেটে এক গণবিজ্ঞপ্তি দিয়েছিলেন।

বিধি নিষেধের মধ্যে রয়েছে- রেডজোনে বসবাসকারী চাকুরিজীবীরা বাসায় থেকে অফিসের কাজ করবেন। জরুরি প্রয়োজনে (যেমন ওষুধ ক্রয় ) অনুমতি সাপেক্ষে বাসা থেকে বের হওয়া যাবে। রিক্সা, ভ্যান, সিএনজি, ট্যাক্সি, মটরসাইকেল, নিজস্ব গাড়িসহ কোন যানবাহন চলবে না। এ্যাম্বুলেন্স সেবা এই আদেশের আওতাবর্হিভূত থাকবে। এসব এলাকায় কলকারখানা বন্ধ থাকবে। অতি জরুরি প্রয়োজনে বের হওয়ার ক্ষেত্রে মাস্ক পরিধানসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে অনুসরণ করতে হবে। কোন ধরণের জনসমাবেশ করা যাবে না। কেবলমাত্র অসুস্থ ব্যক্তি হাসপাতালে যেতে পারবেন। রেডজোনে অন্য এলাকা হতে কেউ প্রবেশ করতে পারবে না। রেডজোনে মুদি দোকান, ওষুধের দোকান খোলা থাকবে। রেস্টুরেন্ট ও খাবার দোকানে কেবলমাত্র হোম ডেলিভারি সার্ভিস চালু থাকবে। তবে শপিংমল, সিনেমা হল, জিম, স্পোর্টস কমপ্লেক্স বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে। মসজিদ ও উপাসনালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ইবাদত করতে পারবেন। অন্যান্যরা নিজ নিজ বাড়িতে ইবাদত করবেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt
error: নিরাপত্তা সতর্কতা!!!