গ্যাস সংযোগ বন্ধ, ২০ হাজার পরিবারে হাহাকার

Gazipur-2206250851.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : শিল্প অধ্যুষিত গাজীপুর কালিয়াকৈর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার প্রায় ২০ হাজার পরিবারে গ্যাস সংযোগ বন্ধ রয়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে রয়েছে এসব পরিবারের মানুষ। তিতাস কর্তৃপক্ষ বলছে গ্যাস লাইন ফেটে গেছে, কাজ চলমান রয়েছে। তবে সমস্যা সমাধান হতে আরও ৭ দিন সময় লাগবে।

পৌরসভার পল্লীবিদ্যুৎ, সফিপুর, রতনপুর, রাখালিয়াচালা, ভান্নারা বাজারসহ কয়েকটি এলাকায় গ্যাস নেই গত তিন দিন ধরে। এদিকে গ্যাস না থাকায় আবাসিক এলাকার লোকজন রান্না-বান্না নিয়ে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।পৌর এলাকার বাসিন্দা আজিরন বেগম।  তার বাসায় ৮ জন সদস্য। তিনি বলেন, কাল পরশুদিন চিড়া মুড়ি খেয়েছিলাম। আজকেও  চিড়া মুড়ি খাইছি।

চুলা নাই, গ্যাস নাই, রান্নার জায়গা নাই। এইভাবে কতোদিন থাকবো। লাকড়ি পর্যন্ত পাওয়া যায় না। কেরোসিন ১২০ টাকা লিটার।সফিপুর মর্নিং সান ন্যাশনাল স্কুলের প্রধান শিক্ষক ফাতেমা আউয়াল বলেন, গত বুধবার (২২ জুন) থেকে গ্যাস বন্ধ রয়েছে। দু’দিন লাকড়ি সংগ্রহ করে রান্না করেছি কিন্তু এখন আর উপায় নেই। শুনলাম আরও বেশ কয়েকদিন সময় লাগবে এজন্য বাধ্য হয়ে আজ সিলিন্ডার গ্যাস কিনতে হবে।

আরও পড়ুন : রাঙামাটির দুর্গম এলাকায় গোলাগুলি, নিহত ১

মেডিক্যাল অফিসার সোহেল রানা বলেন, গ্যাস না থাকায় রেস্টুরেন্টে খাবার কিনে খাচ্ছি।এদিকে বাচ্চারা দু’দিন রেস্টুরেন্টে খাবার খেয়ে অস্বস্তি বোধ করছে। কিন্তু কিছুই করার নেই বাধ্য হয়ে এগুলো খাওয়া লাগছে।মৌচাক এলাকার পোশাক শ্রমিক মরিয়ম খাতুন শুক্রবার বলেন, গ্যাস না থাকায় অনেক কষ্টে আছি।ভেবেছিলাম ছেলেমেয়েদের একটু রান্না করে খাওয়াবো কিন্তু গ্যাস না থাকায় তা আর সম্ভব হয়নি।

পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর খাত্তাব মোল্লা বলেন, গ্যাস লাইনে কাজ চলমান থাকায় তিনদিন ধরে বন্ধ রয়েছে গ্যাস সংযোগ। আমার ওয়ার্ডেই ২০০ টির বেশি রাইজার রয়েছে, যেগুলো বন্ধ। এখানে অধিকাংশ মানুষ বিভিন্ন শিল্পকারখানায় কাজ করেন। তাদের অবস্থা আরও ভয়াবহ।

তিতাস গ্যাস জোনাল মার্কেটিং অফিস চন্দ্রা এড়িয়া কর্মকর্তা মামুন হোসেন বলেন, গ্যাস লাইনের সমস্যার কারণে সংযোগ বন্ধ রয়েছে। রাস্তার কাজ চলমান ও জমি অধিগ্রহণের কারণে গ্যাসের লাইনে কাজ করতে হচ্ছে। গতকাল সকাল হতে কাজ শুরু হয়েছে। কাজ শেষ হতে আরও ৭ দিন লাগতে পারে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top