প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় ওয়াচ টাওয়ার বসানো হয়েছে: আইজিপি

1656058002.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ বলেছেন- প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে ঘিরে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। জনসভাস্থলে দুটি সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ওয়াচ টাওয়ার বসানো হয়েছে।এছাড়া আগামীকালকের উদ্বোধন অনুষ্ঠান ও জনসভাকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা পুনর্মূল্যায়ন করা হচ্ছে।

শুক্রবার (২৪ জুন) বেলা ১১টার দিকে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ফেরিঘাটে প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থল পরিদর্শনে এসে আইজিপি এ মন্তব্য করেন।

বেনজীর আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি অর্জন হয়েছে, এটি বিশ্বকে জানান দিচ্ছে এ অর্জনের মাধ্যমে। সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে সারাদেশ ব্যাপী একটি উৎসবমুখোর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। আমাদের স্বপ্নের পদ্মা সেতু জাতীয় ও আন্তজাতিক পর্যায়ে আলোড়ন তুলেছে। এ অনুষ্ঠানটি সমগ্র দেশবাসী ও আর্ন্তজাতিক পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থলে দুটি সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ওয়াচ টাওয়ার বসানো হয়েছে। যা প্রথম বারের মত আমাদের দেশে ব্যবহার হচ্ছে। এ বড় ওয়াচ টাওয়ার দুটি আমেরিকা থেকে সম্প্রতি আনা হয়েছে। শারীরিকভাবে এখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা পুনর্মূল্যায়ন করছি এবং প্রতি মুহূর্তে মূল্যায়ন করা হচ্ছে। আমাদের সঙ্গে গোয়েন্দা সংস্থার সমন্বয় রয়েছে। আশা করছি দেশবাসীর সমর্থন নিয়ে আগামীকালের ঐতিহাসিক এ মুহূর্তকে উৎসবমুখর পরিবেশে উদযাপন করতে পারবো।

আরও পড়ুন : ঈদুল আজহা: বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু

পুলিশ প্রধান বলেন, সেতু মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা কমিটি এখানে কাজ করছে। আমরা সর্বশেষ নিরাপত্তা পরিস্থিতি দেখতে এসেছি। জনসভাস্থলে যাওয়া-আসার পথ কেমন হবে, গাড়ি পার্কিং কেমন হবে, এসব বিষয়ে আমরা ট্রাফিক পরামর্শ দিয়েছি। এ নির্দেশনা ও বিধিনিষেধ মানলে সবার জন্য জনসভাস্থলে আসা খুবই সহজ হবে। এছাড়াও রাস্তায় সাইন পোস্টিং দেওয়া আছে। যারা এখানে কখনো আসেনি তারাও খুব সহজে এ জনসভাস্থলে প্রবেশ করতে পারবেন।

বেনজীর আহমেদ বলেন, জনসভাকে ঘিরে প্রতিটি স্থানে আমাদের নিরাপত্তার জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা হয়েছে। এখানে জেলা পুলিশ, নৌপুলিশ, ট্রাফিক পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ আলাদাভাবে কাজ করছে। জনসভা শেষ হওয়া না পর্যন্ত আমরা এখানে থাকবো।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটলিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন, মাদারীপুরের পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) চাইলাউ মারমা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) লিমন রায় প্রমুখ।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top