ঈদুল আজহার সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণা করল আমিরাত

eid-ul-adha-20220622182709.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে পবিত্র ঈদুল আজহার সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। জ্যোতির্বিজ্ঞানের হিসেব অনুযায়ী, আগামী ৩০ জুন (বৃহস্পতিবার) পবিত্র জিলহজ মাস শুরু হতে পারে। সেই হিসেবে দেশটিতে পবিত্র ঈদুল আজহা আগামী ৯ জুলাই উদযাপনের সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করেছে এমিরেটস অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সোসাইটি।

এমিরেটস অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সোসাইটির প্রধান ইব্রাহিম আল জারওয়ান বলেছেন, মুসলমানরা ৯ জিলহজ আরাফাত দিবস পালন করেন।

পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন উপলক্ষে এ বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাসিন্দারা চার দিনের ছুটি পাবেন। এই ছুটির মধ্যে রয়েছে আরাফাতের দিন এবং ঈদুল আজহার তিন দিন।

দেশটির ইংরেজি দৈনিক খালিজ টাইমস বলছে, আমিরাতের বাসিন্দারা পবিত্র ঈদুল আজহার ছুটি ৮ জুলাই থেকে শুরু হয়ে ১১ জুলাই পর্যন্ত উপভোগ করতে পারবেন। এই সময় ভ্রমণের চাহিদা তুঙ্গে উঠতে পারে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। কারণ ছুটির সময় অনেক আমিরাতি এবং প্রবাসী ছুটি কাটাতে আমিরাতের বাইরে যান।

আরাফাত দিবস কী?

পবিত্র জিলহজ মাসের ৯ তারিখ মুসলিমদের কাছে অন্যতম এক পবিত্র দিন। হজযাত্রীরা তাদের পাপের জন্য অনুতপ্ত হয়ে আরাফাতের ময়দানে দিনটি কাটান। এই ময়দান থেকেই মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) শেষ খুতবা দিয়েছিলেন।

যে মুসলিমরা হজে যেতে পারেন না তারা সেদিন রোজা রাখেন।

ঈদুল আজহা

সারা বিশ্বের মুসলিমরা পবিত্র ঈদুল আযহা বা কোরবানির উৎসব বিশেষ প্রার্থনার মাধ্যমে পালন করেন। ইসলামের বিভিন্ন বর্ণনা  অনুযায়ী, সৃষ্টিকর্তা মহান আল্লাহ ইসলামের নবী ইব্রাহিমকে (আ.) স্বপ্নে তার সবচেয়ে প্রিয় বস্তু কোরবানি করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

নির্দেশ পালনে ইব্রাহিম তার প্রিয় পুত্র ঈসমাইলকে কুরবানি করার জন্য প্রস্তুত হলে সৃষ্টিকর্তা তাকে বাধা দেন এবং পুত্রের পরিবর্তে পশু কুরবানির নির্দেশ দেন। সারা বিশ্বের মুসলিম ধর্মালম্বীরা এই ঘটনাকে স্মরণ করে প্রত্যেক বছর পশু কুরবানির মাধ্যমে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন করেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top