ঈদ মৌসুমে রাত ৮টার পরও দোকান খোলা রাখতে চান ব্যবসায়ীরা

download-35.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : বিশ্বব্যাপী মূল্যবৃদ্ধিজনিত পরিস্থিতি বিবেচনায় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ে রাত ৮টার পর সারা দেশে দোকান, শপিং মল, মার্কেট, বিপণিবিতান খোলা না রাখার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। যা গতকাল (সোমবার) থেকে কার্যকর হয়েছে। তবে কার্যকরের প্রথম রাতে বড় বড় শপিং মল ছাড়া অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে সরকারের এ নির্দেশনা মানতে দেখা যায়নি।

বিষয়টি সাধারণ মানুষ একদিকে ভালো চোখে দেখলেও ব্যবসায়ীরা সেটিকে ভালোভাবে দেখছেন না। তারা ঈদের মৌসুমে ৮টার পরও দোকান খোলা রাখতে চান। মঙ্গলবার (২১ জুন) ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থী আনান বিন মোর্শেদ  বলেন, জ্বালানি সাশ্রয়ের জন্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শপিং মলসহ অন্যান্য মার্কেট বন্ধ রাখার। তবে আমি মনে করি, মার্কেট ছাড়া আরও অনেক উপায় আছে জ্বালানি সাশ্রয় করার। একটি মার্কেট খুলে সকাল ১০টার দিকে এবং বন্ধ হয় রাত ১২টার দিকে। কিন্তু বর্তমানে সেই মার্কেটটি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বন্ধের প্রস্তুতি নিতে হয়। যার ফলে আর্থিক লেনদেন কম হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, শহরে অনেক বড় বড় স্থাপনা আছে। যেগুলোতে সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য রাতে প্রয়োজনের বেশি লাইট জ্বালানো হয়। সেগুলো বন্ধের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মী জাহিদ আহসান  বলেন, সরকার উদ্যোগ ভালোর জন্যই নেয়। তবে অনেক সময় আমাদের কিছুটা বিপদে পড়তে হয়। আমার যারা বেসরকারি চাকরি করি তারা অনেকেই সাতটা বা সাড়ে সাতটার আগে অফিস থেকে বের হতে পারি না। কিছু কেনাকাটার প্রয়োজন হলে সেটি রাতেই করতে হয়। এক্ষেত্রে আমাদের এখন কিছুটা বেগ পেতে হবে।

নূর জাহান সুপার মার্কেটের একটি জিন্স প্যান্ট বিক্রির দোকানি নাজমুল হাসান বলেন, সারাদিন বিক্রি হয় টুকটাক। ঢাকা শহরের সব মানুষই ব্যস্ত। তাই কাজ শেষে সবাই ভিড় করে সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত। বিক্রিটা এই সময়েই ভালো হয়। এখন সরকার বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য মার্কেট বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাও আবার সেটি ঈদের আগে। এটা আমাদের জন্য কী, তা আপনারাই ভালো বলতে পারবেন।

আরেক বিক্রেতা মুন  বলেন, গত ঈদের আগে এক সংঘর্ষে ঈদ মৌসুমের ব্যবসায় ক্ষতি হয়েছে। এবার আসল সরকারি নির্দেশনা। সরকার এই নির্দেশনা ঈদের পর থেকেও বাস্তবায়ন করতে পারত। কিন্তু ঈদের আগে কেন করলা, বুঝলাম না।

এর আগে গত ১০ জুন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়ামে বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক সেমিনারে রাত ৮টার পর থেকে ঢাকা শহর বন্ধ রাখার কথা জানিয়েছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

ওই সময় তিনি বলেছিলেন, পৃথিবীর সব শহরেরই একটি সময়সীমা আছে, ঢাকা শহরের কোনো সময়সীমা নেই। তাই আগামী ১ জুলাই থেকে ঢাকা শহর রাত ৮টার পর বন্ধের উদ্যোগ নেব। অবশ্য রেস্তোরাঁ ও অত্যাবশ্যকীয় যে বিষয়গুলো রয়েছে সেগুলো নির্দিষ্ট সময়ের জন্য খোলা থাকবে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top