খুলনায় ক্লিনিকের ভুল চিকিৎসায় শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ

WhatsApp-Image-2021-06-19-at-8.47.21-AM.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক: খুলনার পাইকগাছায় শাপলা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভুল চিকিৎসায় আবু সু‌ফিয়ান (৭) নামের এক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (১৯ জুন) সকাল ৬ টার দিকে ক্লিনিকে ভর্তি থাকা অবস্থায় শিশুটি মারা যায়। ওই শিশুর বাবার নাম আব্দুস সালাম সরদার। বাড়ী দাকোপ উপজেলার গড়খালীতে।

শিশুর বাবা আব্দুস সালাম সরদার জানান, গত কয়েকদিন ধরে তার ছেলের পেটে ব্যাথা শুরু হয়। পরবর্তিতে চিকিৎসকের কাছ থেকে জানতে পারেন তার অ্যাপেন্ডিসাইটিস নামক রোগ হয়েছে। অপারেশনের করতে হবে।

তিনি বলেন, ‘আমার ছেলেকে অপারেশন করার জন্য গত শুক্রবার সকাল ৯ টায়  শাপলা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করি। বিকেল সাড়ে ৫ টায় সাতক্ষীরা থেকে ডা. ফারুক নামের এক চিকিৎসক এসে অপারেশন করেন। অপারেশন পরবর্তীতে আমার ছেলের আর হুস ফেরে নাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আজ ভোর রাতেও তার হুস না ফেরাই আমরা উদ্বীগ্ন হয়ে পড়ি। পরে ক্লিনিকের চিকিৎসকদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা তাড়াহুড়া করে খুলনায় পাঠানোর ব্যবস্থা করে। তৎক্ষনিক ছেলেটি মারা যায়। তবুই তারা খুলনায় পাঠানোর জন্য মৃত শিশুকে গাড়িতে তুলে দেওয়া চেষ্টা করে। এসময়ে পাইকগাছা বাজারের লোকজন তা ঠিক পেয়ে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষকে বাধা দেয়। পরে আমরা মৃত সন্তান নিয়ে ক্লিনিকের পাশে অবস্থান করি।’

‘তাদের ভুল চিকিৎসায় আমার ছেলে মৃ্ত্যু হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।’ তিনি যোগ করেন।

ওই ক্লিনিকটির স্বত্তাধিকারের নাম তাপস কুমার মন্ডল। এবিষয়ে জানতে তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বরে (0192****341) একাধিক বার কল দিলেও রিসিভ করেন নাই।

পাইকগাছা থানার তদন্ত পরিদর্শক সরদার ইব্রাহিম হোসেন সোহেল বলেন, ‘ঘটনাটি জানতে পেরে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে নিহত শিশুর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় এখনো লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়নি।’

‘উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে। তিনি কিছুক্ষণে মধ্যে ওই ক্লিনিকে যাবেন বলে জানিয়েছেন। তদন্তে ক্লিনেকের কোন ত্রুটি পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।’, তিনি যোগ করেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

scroll to top
error: নিরাপত্তা সতর্কতা!!!