নৌবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় খুলনায় জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস পালিত

.jpg

আইএসপিআর, Prabartan | প্রকাশিতঃ ১৬:৩০, ২৯-০৫-১৯

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় খুলনায় জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস পালিত হয়েছে।

বুধবার (২৯ মে) খুলনার  শিববাড়ী মোড় দিবসটি হয়।

অনুষ্ঠানে মেজর জেনারেল আতাউল হাকিম সরওয়ার হাসান, এসজিপি, এনডিসি, এএফএডব্লিউসি, পিএসসি, পিএইচডি জেনারেল অফিসার কমান্ডিং, ৫৫ পদাতিক ডিভিশন এবং এরিয়া কমান্ডার, যশোর এরিয়া প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় খুলনা নৌ অঞ্চলের আঞ্চলিক কমান্ডার, কমডোর এম মোজাম্মেল হক, (জি), এনইউপি, এনডিসি, পিএসসি, বিএন স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন। পরে নিহত শান্তিরক্ষীদের স্বরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

প্রধান অতিথি বেলুন, ফেস্টুন ও পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সশঙ্প বাহিনী ও পুলিশ, বাংলাদেশে জাতিসংঘের সংস্থাসমূহ, স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তা ও সদস্যবৃন্দ, সশঙ্ত্র বাহিনীর বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রী, নৌ স্কাউটস ও বিএনসিসি শিক্ষার্থীসহ মোট ৩৬৫ জন অংশগ্রহণ করেন। উল্লেখ্য, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারী বিশ্বের সকল দেশের শান্তিরক্গীদের  অসামান্য অবদানকে স্মরণীয় করে রাখতে প্রতি বছর ২৯ মে দিবসটি পালন করা হয়।

১৯৮৮ সালে সর্বপ্রথম শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে অংশগ্রহণের পর হতে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী ও বাংলাদেশ পুলিশের ১,৬৩,৮৮৭ জন শান্তিরক্ষী সদস্য বিশ্বের ৪০ টি দেশে এ পর্যন্ত ৫৪ টি মিশন সফলতার সাথে সম্পন্ন করেছে। বিশ্বের বিভিন্ন যুদ্ধবিধৃস্ত অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও মানবাধিকার রক্ষার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ইতোমধ্যে জাতিসংঘের পরীক্ষিত বন্ধু হিসেবে মর্যাদা লাভ করেছে। বাংলাদেশ সশঙ্প বাহিনী এবং বাংলাদেশ পুলিশের ৬,৫৮২জন শান্তিরক্ষী হিসেবে বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে দায়িতু পালন করছেন। বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় এ মহান দায়িত পালন করতে গিয়ে এ পর্যন্ত বাংলাদেশ সশঙ্প বাহিনী ও বাংলাদেশ পুলিশের ১৪৬ জন কর্মকর্তা ও সদস্য জীবন উৎসর্গ করেছেন। পরিবর্তিত বিশ্বের ক্রমবর্ধমান চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বাংলাদেশের শান্তিরক্ষী সদস্যরা বিচক্ষণতা ও পেশাদারিতের সাথে এবং বুদ্ধিদীপ্ত উপায়ে সংশ্লিষ্ট দেশের স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তা করে যাচ্ছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top