শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী করতে ভেদাভেদ ভুলে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে

DSC_0560.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক

বঙ্গবন্ধু ভ্রাতুস্পুত্র সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দীন বলেছেন আমরা যদি সবাই এক থাকি তবে আমাদের মোকাবেলা করার মত দেশে অন্যকোন সংগঠন থাকবে না ইনশাল্লাহ। আপনারা এখন যে কর্মী বাহিনী আছেন তাদের দলে কোন ভাড়া করা কোন প্রয়োজন নেই।

তিনি বিগত জাতীয় নির্বাচনে দলের জন্য কাজ করে নৌকাকে বিজয় করার জন্য খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সহ সকল সহযোগি ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন বঙ্গবন্ধু চলে গেছেন কিন্তু তিনি আমাদের মাঝে বেঁচে আছেন। ৭৫ পরবর্তী সময়ে আপনারা যারা দলে দুর্দিনে কাজ করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞা জানাই।

তিনি দল মতনির্বিশেষে দেশ ও জাতীর উন্নয়নের সার্থে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়তে সকল ভেদাভেদ ভুলে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।

দলে নেতা কর্মিদের উদ্দ্যেশে বলেন অক্টোবরে জাতীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে। সেই ভাবে সকলকে প্রস্তুতি নিতে হবে।

রবিবার দুপুরে নগরে ইউনাইটেড ক্লাবে খুলনা জেলা আওয়ামী লীগে বিশেষ বর্ধিত সভায় উদ্বোধক হিসাবে জননেতা শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি এসব কথা বলেন।

খুলনা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য এ্যাড. পিযুষ কান্তি ভট্টাচার্য।

সম্মানিত অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও প্রধান মন্ত্রীর অর্থ উপদেষ্টা ড: মসিউর রহমান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন।

সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, যারা দলের সভানেত্রীর নির্দেশ অমান্য করে উপজেলা নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের বিরোধীতা করে নৌকার পরাজয় ঘটিয়েছেন তারা কখনোই ক্ষমা পাবেন না।

তিনি বলেন, শুনেছি খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার নির্বাচন এখনও বাকি রয়েছে। তিনি নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন, নৌকার পক্ষে কাজ করার জন্য। যদি এর ব্যত্যয় ঘটে তাহলে এমপি হন আর যেই হন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি আরো বলেন, নেত্রীর নেতৃত্বের কেন্দ্রীয় মনোনয়নকে যারা চ্যালেঞ্জ করে তারা আর কখনও নৌকার মনোনয়ন পাবে না।

এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রিয় নেত্রী ও শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মনুজান সুফিয়ান এমপি, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুস্পুত্র শেখ সালা উদ্দিন জুয়েল এমপি, কেন্দ্রিয় নেতা এস এম কামাল হোসেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ১৪ দলের সমন্বয়ক ও সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মিনানুর রহমান মিজান, কেন্দ্রিয় নেতা এ্যাড. আমিরুল আলম মিলন, পারভীন জামান কল্পনা, এম মজিদ। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত অধিকারী, ডুমুরিয়া উপজেলা সভাপতি নারায়ন চন্দ্র চন্দ এমপি, আব্দুস সালাম মুর্শিদী এমপি, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মো: আক্তারুজ্জামান বাবু এমপি, কয়রা উপজেলা সভাপতি জি এম মহাসিন রেজা, বটিয়াঘাটা উপজেলা সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফুল আলম খাঁন, দাকোপ উপজেলা সভাপতি আলহাজ্ব শেখ আবুল হোসেন, ডুমুরিয়া সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ নুরুদ্দিন আল মাসুদ, ফুলতলা উপজেলা সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ আকরাম হোসেন, দিঘলিয়া উপজেলা সভাপতি খান নজরুল ইসলাম, তেরখাদা উপজেলা সাধারণ সম্পাদক কে এম আলমগীর হোসেন, রূপসা উপজেলা সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম ডাবলু, জেলা মহিলা সম্পাদিকা হোসনে আরা চম্পা।

সভা পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল, দপ্তর সম্পাদক এ্যাড. ফরিদ আহমেদ ও প্রচার সম্পাদক আলহাজ্ব জোবায়ের আহমেদ খান জবা।

বর্ধিত সভায় খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ, উপজেলা, পৌর, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, দলীয় উইপি চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদ সদস্যবৃন্দ সহ সহযোগী সংগঠনে নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: নিরাপত্তা সতর্কতা!!!