সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা না করায় তোপের মুখে জয়-লেখক

download-13-5.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশনার পরও ছাত্রলীগের ৩০তম সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা না করায় তোপের মুখে পড়েছেন ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, শনিবার দুপুরে ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য মধুর ক্যান্টিনে আসার আগে থেকেই সেখানে অবস্থান করছিলেন সম্মেলন প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা। জয়-লেখক আসার পর নেতারা তাদের (জয়-লেখক) কাছে সম্মেলনের তারিখ ঘোষণায় দেরি হচ্ছে কেন, কবেই বা সম্মেলন হবে এসব প্রশ্ন করেন। কিন্তু এ সময় জয়-লেখক তাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন নির্দেশনা দেবেন তখনই সম্মেলন করা হবে।

এ সময় উপস্থিত থাকা সম্মেলন প্রত্যাশী ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ আরিফ হোসেন  বলেন, প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে সম্মেলনের নির্দেশনা আসার পরও তারা সেটা পেছানোর জন্য নানা চেষ্টা করছেন। আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সিনিয়র নেতাদের কাছে ধরনা দিচ্ছেন। দীর্ঘদিন পর আজ দুপুরে মধুর ক্যান্টিনে আসেন জয়-লেখক। এসময় আমরা সম্মেলনের তারিখ এবং প্রস্তুতির বিষয়ে জানতে চাই। তখন জয়-লেখক বলেন, আমাদের দুই দিনের ভেতর তারিখ নিতে বলেছিলেন, নিতে পারিনি। দেখি আগামী দুই-এক দিনের মধ্যে আপার (শেখ হাসিনার) সঙ্গে কথা বলে তারিখ নির্ধারণ করব।

ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইয়াজ আল রিয়াদ বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের স্পষ্টভাবে বলে দিয়েছেন দপ্তর সেলে দুই দিনের মধ্যে সম্মেলনের তারিখ জমা দিতে। কেন তারিখ জমা দেওয়া হয়নি এটিই ছিল তাদের (জয়-লেখকের) কাছে আমাদের প্রশ্ন। এ সময় তারা আমাদের বলেন, তারা নেত্রীর (শেখ হাসিনা) সাথে কথা বলে তারিখ জমা দেবেন। যে তারিখে সম্মেলন দেওয়া হবে সে তারিখে নেত্রীর সময়-শিডিউল আছে কি না তারা সেটি দেখে তারিখ দেয়ার চেষ্টা করছেন।

ছাত্রলীগের উপ-প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক মেশকাত হোসাইন বলেন, তারা ইচ্ছেকৃতভাবে সম্মেলনে পেছানোর চেষ্টা করছেন। তারা নেত্রী এবং পার্টির সাধারণ সম্পাদকের কথা অমান্য করছেন। তবে ছাত্রলীগের ৩০তম সম্মেলনের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে নিশ্চিত করেছেন ওবায়দুল কাদের স্যার। আপা (প্রধানমন্ত্রী) শিডিউল দিলেই চূড়ান্ত তারিখ নির্ধারণ।

এর আগে গত ৭ মে আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় সহযোগী সদস্যগুলোকে সম্মেলন করার নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী। গত মঙ্গলবার (১০ মে) সম্পাদকমণ্ডলীর সভায় আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সম্মেলন করার নির্দেশনা দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

জানা যায়, ওই সভায় উপস্থিত থাকা ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে দু-এক দিনের মধ্যে আওয়ামী লীগের দপ্তর সেলের সঙ্গে যোগাযোগ করে তারিখ নির্ধারণের জন্য নির্দেশনা দেন কাদের। তবে আওয়ামী লীগের দপ্তর সেলে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জয়-লেখক এখনও কোনো সিদ্ধান্ত জানাননি।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top