দেশে এলো সবুজ-টেকসই ল্যাপটপ এসার অ্যাসপায়ার ভেরো

1652249490.acer_.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : গ্লোবাল পিসি ব্র্যান্ড এসার বাংলাদেশে তাদের সবুজ এবং টেকসই ল্যাপটপ এসার অ্যাসপায়ার ভেরো উন্মোচনের ঘোষণা দিয়েছে।মঙ্গলবার (১০ মে) রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এক অনুষ্ঠানে এসার অ্যাসপায়ার ভেরো উন্মোচনের ঘোষণা দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, অ্যাসপায়ার ভেরো এমন একটি সবুজ-অগ্রগামী ল্যাপটপ, যা চিন্তাশীল টেকসই ডিজাইনে তৈরি। রিসাইকেল উপকরণ থেকে তৈরি, পরিবেশবান্ধব এ অ্যাসপায়ার ভেরো ল্যাপটপটি ইলেকট্রনিক পণ্য পরিবেশগত মূল্যায়ন টুল রেজিস্টার্ড। পিসিআর একীকরণের পথ প্রদর্শক থেকে এ ল্যাপটপ ডিভাইসের চেসিস ও স্ক্রিন বেজেলে ৩০ শতাংশ এবং কিক্যাপগুলোতে ৫০ শতাংশ পিসিআর প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয়েছে, যার ফলে পরিবেশে কার্বন নির্গমন ২১ শতাংশ পর্যন্ত কমবে।

যত্ন সহকারে তৈরি করা ল্যাপটপটি মানব গ্রহের প্রয়োজনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে, অপ্রয়োজনীয় বর্জ্য কমাতে আপগ্রেড করা সহজ। এর সিগনেচার কি ‘R’ এবং ‘E’ প্রতিধ্বনিত হয় রিডিউজ, রিইউজ এবং রিসাইকেল। ল্যাপটপটির শক্তি কার্যকারিতা নিয়ন্ত্রণ, কার্বন গণনা, বৈদ্যুতিক বিল কমাতে ভেরোসেন্স নামে ইনবিল্ট অ্যাপ রয়েছে। ইকো-মাইন্ডেড ব্যবহারকারীদের জন্য এটি নিয়ে এসেছে শক্তি-সঞ্চয় ব্যাটারির আয়ু বাড়ানোর সুবিধা।

আরও পড়ুন : প্রাথমিকের নতুন ক্লাস রুটিন প্রকাশ

অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহারকারীদের চারটি কর্মক্ষমতা বেছে নেওয়ার মোড প্রদান করে: পারফরম্যান্স, ব্যালেন্সড, ইকো এবং ইকো+। ভেরোসেন্স শুধুমাত্র পরিবেশবান্ধবই নয়, এটি ব্যবহারকারীবান্ধবও, এতে ব্যবহৃত সহজ ইউজার ইন্টারফেস এর মাধ্যমে যে সহায়ক তথ্য দেখানোর জন্য যে প্রচেষ্টা ছিল, তাতে বাসযোগ্য পৃথিবী নামক গ্রহের জন্য কিছু কাজ করা সম্ভব হয়েছে৷

অনুষ্ঠানে এসার ইন্ডিয়া ও বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টর হারিশ কোহলি বলেন, অ্যাসপায়ার ভেরোর উদ্যোগে আমরা বাংলাদেশে আমাদের সবুজ ও টেকসই প্রচেষ্টা চালু করতে পেরে আনন্দিত। শুধু একটি স্টাইলিশ কম্পিউটারের চেয়েও বেশি, অ্যাসপায়ার ভেরো এসারের টেকসই অপারেশন প্রতিশ্রুতির একটি বাস্তব বহিঃপ্রকাশও। নতুন এ ডিজাইন এবং ধারণার উদ্যোগ আমাদের ভবিষ্যতের পরিবর্তনে অভূতপূর্ব ভূমিকা রাখবে। ভেরো প্লাস্টিক বর্জ্য এবং এর ফলে কার্বন নিঃসরণের মাত্রা কমাবে। এসারের এ উদ্যোগের জন্য আমরা গর্বিত এবং বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে উদ্ভাবনী পণ্য এবং প্রযুক্তিকে সবার কাছে অ্যাক্সেসযোগ্য করে তোলার জন্য উন্মুখ।

হাইব্রিড কাজ এবং ভার্চ্যুয়াল মিটিং এখন সময়ের ক্রমবর্ধমান সাধারণ চাহিদা হয়ে উঠছে, একটি কনফারেন্স কলের মান ঠিক ততটাই প্রাসঙ্গিক। নতুন প্রজন্মের এসার পিউরিফাইড ভয়েস আর কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সমন্বয়ে গোলমালের শব্দ কমাবে, যা হেডফোন এবং মাইকের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

এসার অ্যাসপায়ার ভেরো মডেলে পাওয়া যাবে ১৫.৬ ইঞ্চি ফুল এইচডি (১,৯২০ x ১,০৮০ পিক্সেল) আইপিএস এলইডি ব্যাকলিট এলসিডি ডিসপ্লে। এটি একটি ন্যারো বেজেল ডিজাইন যার স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাত ৮১ দশমিক ৪২ শতাংশ।অ্যাসপায়ার ভেরো শতভাগ পুনর্ব্যবহারযোগ্য প্যাকেজিংয়ের সঙ্গে আসে, যা বক্সের বিষয়বস্তুর অংশকে সম্পূর্ণরূপে কার্যকরী ল্যাপটপ স্ট্যান্ডে রূপান্তর করতে পারে।

এসার মানবতার জন্য গুরুত্বপূর্ণ কিছু কারণের সমাধান করার জন্য এবং পোর্টফোলিও জুড়ে টেকসই অনুশীলনের জন্য একটি পরিষ্কার উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করে। পণ্য এবং প্যাকেজিংয়ের উপকরণ থেকে শুরু করে সাপ্লাই চেইনের শক্তি এবং অখণ্ডতা, এসার পুরো জীবনচক্রকে মাথায় রেখে ডিভাইস ডিজাইন করে। এ প্রজন্মের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবকে দমন করা। পরিবেশগত স্থায়িত্ব এমন একটি বিষয়, যা আমাদের সবাইকে প্রভাবিত করে, প্রযুক্তিগত স্থানের অবদানকারী হিসেবে আমাদের এ মিশনের এক ধাপ কাছাকাছি নিয়ে আসা আমাদের দায়িত্ব। এসারের স্থায়িত্বের প্রচেষ্টা ব্র্যান্ডটিকে একটি শিল্পের নেতৃত্বদানকারী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে তুলেছে, যেভাবে আমরা গ্রহটিকে সংরক্ষণ ও রক্ষা করি, যোগ করেন তিনি।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top