খুলনায় অবরুদ্ধ সময়ের কবিতার আসর

1-3-1.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট, Prabartan | আপডেট: ১৭:৫৩, ৩০-০৩-১৯

সমাজের নানান অসংগতি তুলে ধরে খুলনায় ‘অবরুদ্ধ সময়ের কবিতা’ পাঠের আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সময়ের স্রোতে গা না ভাসিয়ে বিপরীতে দাঁড়িয়ে এক ঝাঁক সৃষ্টিশীল কবি কবিতার অক্ষরে অক্ষরে তুলে ধরেছেন সময়কে।

শনিবার (৩০ মার্চ) বিকেল ৪টায় মহানগরীর উমেশচন্দ্র পাবলিক লাইব্রেরিতে এ কবিতা আসরের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কবি অনুপ সানি। এসময় তিনি বলেন, ময়মনসিংহ থেকে ‘অবরুদ্ধ সময়ের কবিতা’ নামে একটি আন্দোলন শুরু করি। সেই ধারাবাহিকতায় শ্রীমঙ্গলের পর এবার খুলনায় এ আয়োজন করা হয়েছে। ক্রমান্বয়ে তা সারা দেশে অনুষ্ঠিত হবে।

বিবৃতি পাঠ করেন কবি হাসান জামিল। আলোচনায় অংশ নেন কবি এহসান হাবীব, হাসান ফকরী ও শামীম আশরাফ লিটু। আসরটি উপস্থাপন করেন কবি রুহুল আমিন ও দোলন প্রভা।

পরে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা অর্ধশতাধিক কবি দেশের বর্তমান অবস্থা, মানবতা, সমাজ, সংস্কৃতি ও রাজনীতি নিয়ে কবিতা আবৃতি করেন।

তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যরা হলেন- কবি হাসান ফকরী, চিলু কবীর রঘু অভিজিত রায়, রইস মুকুল, জিয়াবুল ইবন, আশিক আকবর, হাসান জামিল, মাহমুদুল শান্ত, সৌরভ মাহমুদ,  অনুপ সাদি, এহসান হাবীব, জাবেদ ভুঁইয়া, সাঈদ বিলাস, মিজান মজুমদার, ড. ইবাইস আমান,পলিয়ার ওয়াহিদ, রাজলক্ষী, আসমা বেগম, অজয় কুমার রায়, মিলু হাসান, বেনজিন খান,  শামীম আক্তার লিটু, রোমেল রহমান, অনিন্দ্য অবনী, সাইমন স্বপন, রতন মন্ডল, সাজ্জাদ হায়দার নান্নু, জব্বার মুহাম্মদ, মিহির কান্তি মন্ডল, আঁখি সিদ্দিকা, নিয়াজ মোর্শেদ দোলন, প্রশান্ত। তানিয়া সুলতানা,

কবিরা বলেন, মানুষ যখন কথা বলতে পারে না, কথা ভুলে যান, কবিরা তখন ফুঁসে ওঠেন। কবিতার শব্দ ঝাঝালো হয়ে ওঠে। পুলিশ দেখলে স্বস্তি আসার কথা। কিন্তু রাত দুপুরে নয়, দিবালোকে পুলিশ কড়া নাড়লে আতঙ্ক ফুলে ফেপে ওঠে। কবিরাই কবিতায় দেশ থেকে অন্ধকার তাড়ানোর জন্য মশাল জ্বালান। কবিতা মানুষের মাঝে সাহস জোগায়। শাসকের ভীতে নাড়া দেয় কবিতা।

এসময় তারা মানুষকে কথা বলার মাধ্যমে প্রতিবাদের ভাষাকে শানিত করার আহবান জানান।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: নিরাপত্তা সতর্কতা!!!