খুলনায় করোনা মোকাবিলায় সর্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখছেন মসিউর রহমান

91157347_557423448225609_7306262965664088064_n.jpg

আফসানা আকতার তিসা: সাম্প্রতিক সময়ে নোভেল করোনা ভাইরাস ( COVID-19) এর প্রাদুর্ভাব ও বিস্তার রোধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয় করোনা সম্পর্কিত জরুরী বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। এ অবস্থায় খুলনাবাসীর সর্বক্ষণিক খোঁজ খবর রাখছেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান।

তিনি জানিয়েছেন, করোনার প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন থাকায় খাদ্যাভাবে পড়তে পারেন এমন অসহায় ও দুঃস্থ ব্যক্তিদের মানবিক সহায়তা কার্যক্রম, প্রধানমন্ত্রী যুগান্তকারী এ পদক্ষেপ নিয়েছে। খুলনার স্থানীয় প্রশাসন সেই মোতাবেক কাজ করে যাচ্ছে। এ সময়ে খুলনার মানুষের কোন চাহিদার ঘাটতি পড়ছে কিনা তা সবসময় নেতাকর্মী ও সংশ্লিষ্ঠদের কাছ থেকে খোঁজখবর নিচ্ছেন। কোথাও কোন ত্রুটি জানতে পারলে তাৎক্ষণিক প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিচ্ছেন। ইতোমধ্যে পিপিই, মাস্ক, খাদ্য জেলা পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। সেখানে থেকে বিতরণ কার্যক্রম চলছে।

খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যলয় সূত্রে জানা গেছে, ইতিমধ্যে খুলনা বিভাগে পিপিই, মাক্স ও খাদ্য বিতরণ শুরু হয়েছে। ২৮ মার্চ পর্যন্ত খুলনা বিভাগে ৫৮২৪ টি পিপিই মজুদ, ২৪৯৬ টি পিপিই বিতরণ, ৭৪২৬ টি মাস্ক মজুদ, ৩৩৩৪২ টি মাস্ক বিতরণ, ১৩৮৫২ টি পরিবারের মাঝে খাদ্য, ১২৪০২ টি পরিবারের মাঝে ১৫ লাখ ৪১ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ২৩৩৬.৫২ মেট্রিকটন খাদ্য ও ৬৮ লাখ ৮৬ হাজার ৫০০ টাকা মজুদ রয়েছে।

যার মধ্যে খুলনা জেলায়, ১৭০০ টি পিপিই মজুদ, ৬৫০ টি পিপিই বিতরণ, ২৩০০ টি মাস্ক মজুদ, ১৩ হাজার মাস্ক বিতরণ, তিন হাজার পরিবারের মাঝে ৪৫০ মেট্রিক টন খাদ্য, ১৬ শত পরিবারের মাঝে আট লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ৫০ মেট্রিকটন খাদ্য ও দুই লাখ টাকা মজুদ রয়েছে।

বাগেরহাট জেলায়, ৭৫০ টি পিপিই মজুদ, ৬৬৫ টি পিপিই বিতরণ, ১২০০ টি মাস্ক মজুদ, ৭০০ মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ১০০ মেট্রিকটন খাদ্য ও দশ লাখ টাকা মজুদ রয়েছে।

সাতক্ষীরায় জেলায়, ৬৬৫ টি পিপিই মজুদ, ৭৫ টি পিপিই বিতরণ, ১৪০০ টি মাস্ক মজুদ, ১৮ ০০০টি মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ৩০০ মেট্রিকটন খাদ্য ও নয় লাখ ৫০ হাজার টাকা মজুদ রয়েছে।

যশোর জেলায়, ৩৯৩ টি পিপিই মজুদ, ১৫১ টি পিপিই বিতরণ, ৪২২ টি মাস্ক মজুদ, ২০৩ টি মাস্ক বিতরণ, দশ হাজার পরিবারের মাঝে ১০০ মেট্রিক টন খাদ্য, ১০ হাজার পরিবারের মাঝে ৬ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ২২৪ মেট্রিকটন খাদ্য ও ৬ লাখ টাকা মজুদ রয়েছে।

ঝিনাইদহ জেলায়, ২৬৮ টি পিপিই মজুদ, ৮৮ টি পিপিই বিতরণ, ২০৯ টি মাস্ক মজুদ, ১০৪ টি মাস্ক বিতরণ, ২ টি পরিবারের মাঝে খাদ্য, ২ টি পরিবারের মাঝে এক হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ৩২৭.৯৮ মেট্রিকটন খাদ্য ও ৯ লাখ ১৬ হাজার ৫০০ টাকা মজুদ রয়েছে।

মাগুরা জেলায়, ৬৮০ টি পিপিই মজুদ, ১৩০ টি মাস্ক মজুদ, ২০০ টি পরিবারের মাঝে ২ মেট্রিকটন খাদ্য, ২০০ টি পরিবারের মাঝে ৪০ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ২১২ মেট্রিক টন খাদ্য ও ৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকা মজুদ রয়েছে।

নড়াইল জেলায়, ১১৫ টি পিপিই মজুদ, ২২৫ টি পিপিই বিতরণ, ৩০০ টি মাস্ক মজুদ,৩০০ মাস্ক বিতরণ,৬০০ টি পরিবারের মাঝে ১৮ মেট্রিক টন খাদ্য, ৬০০ টি পরিবারের মাঝে ১ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ২৬৮.৫৪ মেট্রিকটন খাদ্য ও ৭ লাখ ৩১ হজার ৫০০ টাকা মজুদ রয়েছে।

কুষ্টিয়া জেলায়, ১৩৫ টি পিপিই মজুদ, ২১৫ টি পিপিই বিতরণ, ১৩৫ টি মাস্ক মজুদ,২১৫ মাস্ক বিতরণ, ৫০ টি পরিবারের মাঝে খাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ১৬০ মেট্রিকটন খাদ্য ও ২ লাখ টাকা মজুদ রয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা জেলায়, ৫৪০ টি পিপিই মজুদ, ৩২০ টি পিপিই বিতরণ, ১২৩০ টি মাস্ক মজুদ, ৫৫০ টি মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ৩৫৮ মেট্রিকটন খাদ্য ও ৭ লাখ ৪৯ হজার ৫০০ টাকা মজুদ রয়েছে।

মেহেরপুর জেলায়, ৩২ টি পিপিই মজুদ, ৩০৩ টি পিপিই বিতরণ, ১০০ টি মাস্ক মজুদ, ২০০ টি মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও ৩১৬ মেট্রিকটন খাদ্য ও ৭ লাখ ৭৫ হজার টাকা মজুদ রয়েছে।

তিনি, করোনাকে কেন্দ্র করে প্রধানমন্ত্রীর সকল ঘোষনা সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন করতে সকল কতৃপক্ষ, জনসাধারন ও দলীয় নেতাকর্মীদের আহবান জানিয়েছেন।

এছাড়াও জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ হােম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণ, নিত্য প্রয়ােজনীয় দ্রব্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণ, বাজার মনিটরিং, জনসমাগম প্রতিহতকরণ এবং সাধারণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং সামরিক বাহিনীর সাথে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা ও তদারকি করছেন। কর্মহীন থাকায় খাদ্যাভাবে পড়তে পারেন, এমন অসহায় ও দুস্থ ব্যক্তিদের মানবিক সহায়তার লক্ষ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণ খাদ্যদ্রব্য মজুদ রাখা হয়েছে এবং নিত্যপ্রয়ােজনীয় দ্রব্যের মূল্য স্বাভাবিক রাখা ও সাধারন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং সামরিক বাহিনির সাথে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা ও তদারকি করায় খুলনার সংশ্লিষ্ঠ সকলকে তিনি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।