সমালোচনাকে ব্যক্তিগত বিদ্বেষ মনে করেন নান্নু

nannu-20220319132433.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : গত ডিসেম্বরে প্রধান নির্বাচক হিসেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সঙ্গে চুক্তি শেষ হয়েছে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর। তার আগে থেকেই তাকে নিয়ে হচ্ছে সমালোচনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নান্নুর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন সমর্থকরা। কখনো সংবাদমাধ্যমে উঠে আসে সেসব। তবুও এই নির্বাচকের ওপর আস্থা রেখেছে বিসিবি। মেয়াদ না বাড়লেও দায়িত্ব চালিয়ে চাওয়ার সার্টিফিকেট পেয়েছেন নান্নু।

এসব সমালোচনাকে আমলে নিতে নারাজ বাংলাদেশ দলের সাবেক এই অধিনায়ক। আজ (শনিবার) মিরপুরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানালেন, তিনি মনে করেন তাকে করা সমালোচনা ব্যক্তিগত বিদ্বেষ।নান্নু বলেন, ‘ব্যক্তি হিসেবে কেউ করে থাকলে এটা তো আমার দেখার বিষয় না। এখানে টিম ম্যানেজমেন্ট, নির্বাচক প্যানেল সবাই মিলেই দলটা তৈরি করে। সব কিছু একসঙ্গে করি। ব্যক্তিগতভাবে কিছু করা হয় না।’২০১১ সালে নির্বাচক হিসেবে জাতীয় দলের দায়িত্ব নেন নান্নু। ২০১৬ সালে পান প্রধান নির্বাচকের দায়িত্ব।

২০১৯ সালে পুনরায় মেয়াদ বাড়ে তার। ২০২১ এ মেয়াদ শেষের আগে দল নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন ওঠে তার বিরুদ্ধে। তবে নান্নুর নেতৃত্বেই তিন সদস্যের নির্বাচক প্যানালের তৈরি দল বেশ সফলতা এনে দিচ্ছে। দেশের সঙ্গে দেশের বাইরেও সফলতা পাচ্ছে বাংলাদেশ দল। শুক্রবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে জয় তো রীতিমতো ইতিহাস তৈরি করলো।

আরও পড়ুন : জুয়েলারি মেলার শেষ দিনে দর্শনার্থীদের ভিড়, অলংকারে বড় ছাড়

এই সাফল্যর কৃতিত্ব একা নিতে চান না নান্নু, ‘দল ভালো করলে তো শুধু আমরা না, পুরো দেশবাসীর জন্য বিরাট গর্বের ব্যাপার। এই দলের অংশ হিসেবে অসম্ভব ভালো লাগছে। দক্ষিণ আফ্রিকার কন্ডিশন আমাদের জন্য যথেষ্ট চ্যালেঞ্জিং। আমরা আন্ডারডগ হিসেবে শুরু করেছিলাম। এই পারফরম্যান্স আগামীতে আরও ভালো খেলার জন্য সাহস যোগাবে। পুরো দলের যে প্রচেষ্টা, দুর্দান্ত। প্রত্যেক ধাপে তাদের মানসিকতা দারুণ ছিল। সবকিছু মিলে বলব এটা দলীয় প্রচেষ্টা। এই প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকলে এই পারফরম্যান্স সামনে আরও সাহস যোগাবে।’

সঙ্গে যোগ করেন নান্নু, ‘এটা আমার না, আমাদের। আমাদের প্যানেলটা। দল ভালো খেললে আমাদের প্যানেল অবশ্যই আত্মবিশ্বাস পায়। গত দুই বছরে আমরা অনেক ওয়ানডে সিরিজ জিতেছি। ওয়ানডে দলের একটা ভারসাম্য আছে। যেটা টি-টোয়েন্টিতে এখনও পারিনি। টেস্টে নিউজিল্যান্ডে গিয়ে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে এসেছি। আস্তে আস্তে টি-টোয়েন্টি নিয়েও কাজ করা হচ্ছে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে এই জয় অবশ্যই মানসিকভাবে আমাদের বুস্ট আপ করেছে। এই প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকলে অন্যান্য ফরম্যাটেও ভালো কিছু হবে।’

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top