বাথরুমেই স্ট্রোক বেশি হয় কেন?

brain-1-20220314141726.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : স্ট্রোকের ঘটনার ক্ষেত্রে দেখবেন বেশিরভাগই ঘটে বাথরুমে। এটি কি শুধুই কাকতালীয় নাকি রয়েছে বিশেষ কোনো কারণ? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই প্রবণতার পেছনে নির্দিষ্ট কারণ রয়েছে। সাধারণত আমরা বাথরুমে গোসল করতে গিয়ে প্রথমে ভেজাই মাথা ও চুল, এটি মোটেই সঠিক অভ্যাস নয়। এটি ভুল পদ্ধতি।

প্রথমে মাথা ভেজানো ঠিক নয় কেন

আপনি যদি গোসল করতে গিয়ে প্রথমেই মাথায় পানি দেন তাহলে রক্ত দ্রুত মাথায় উঠে যাবে। এর ফলে কৈশিক ও ধমনী একসঙ্গে ছিঁড়ে যেতে পারে। যে কারণে মুহূর্তে ঘটে যেতে পারে স্ট্রোক, অতঃপর মাটিতে পড়ে যাওয়া। বাথরুমে থাকার কারণে সবার নজরে আসতেও সময় লাগে।

প্রতিবেদন কী বলছে

কানাডার মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন জার্নালে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মিনি স্ট্রোক বা স্ট্রোকের কারণ হিসেবে যে ধরনের ঝুঁকির কথা আগে ধারণা করা হতো, এই ঝুঁকি সেগুলোর মধ্যে অত্যন্ত বেশি দীর্ঘস্থায়ী এবং হয়ে দাঁড়াতে পারে আরও ভয়াবহ।

আরও পড়ুন : ঈদের আগে নেপাল ভ্রমণের দারুণ সুযোগ

গবেষণা রিপোর্ট

বিশ্বের একাধিক গবেষণা রিপোর্ট থেকে জানা গেছে, গোসলের সময় স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বা পক্ষাঘাতগ্রস্ত হওয়ারা ঘটনা দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে। আর এ কারণেই কিছু নিয়ম মেনে গোসল করা উচিত। সঠিক নিয়ম মেনে গোসল না করলে তা হতে পারে মৃত্যুর কারণও।

গোসলের সময় যা করা যাবে না

গোসল করার সময় প্রথমে কখনোই মাথা এবং চুল ভেজাবেন না। এর কারণ হলো শরীরে রক্ত সঞ্চালন হয়ে থাকে একটি নির্দিষ্ট তাপমাত্রায়। আর শরীরের তাপমাত্রা বাইরের তাপমাত্রার সঙ্গে মানিয়ে নিতে সময় লাগে কিছুটা।

গোসলের সঠিক নিয়ম

গোসল করার সময় সবার আগে ভেজাবেন পায়ের পাতা। এরপর উপরের দিকে ধীরে ধীরে ভেজাতে হবে। কাঁধ পর্যন্ত ভেজাবেন। এরপর মুখে পানি দেবেন। সবার শেষে মাথায় পানি দেবেন। যাদের উচ্চ রক্তচাপ, উচ্চ কোলেস্টরেল এবং মাইগ্রেনের সমস্যা আছে তাদেরসহ সবারই এই পদ্ধতি মেনে চলা জরুরি।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top