খুলনায় ই‌জি রাই‌ডের মিলন মেলা ও কর্মী সভা

274807670_344547170946736_286369955886227461_n-1.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশে দ্রুত গতিতে জনপ্রিয় হচ্ছে রাইড শেয়ারিং ও রাইড হায়ারিং সার্ভিস। যোগাযোগ ব্যবস্থা ও পণ্য পরিবহনে আধুনিকতার এ সার্ভিস নতুন মাত্রা যোগ করেছে। এ সেক্টরে যেমন সার্ভিস গ্রহীতা বাড়ছে, ঠিক তেমনি পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ড্রাইভার বা রাইডার এর চাহিদাও। এমন অবস্থায় একটি ইজি বাইক, মোটরসাইকেল কিংবা ব্যক্তিগত গাড়ি থাকলে নেটওয়ার্ক কভারেজযুক্ত এলাকায় খুব সহজে রাইড শেয়ারিং বা রাইড হারায়িং করে আয় করা সম্ভব। আবার এ রাইড হারায়িং সার্ভিস গ্রহণ করে নিরাপদে তারা গন্তব্যে পৌঁছে যাচ্ছেন। অনেকেই এখন রাইড শেয়ারিং ও রাইড হারায়িং থেকে আয় করাকে পছন্দের পেশা হিসেবে নিচ্ছেন। সুন্দরবনের কোল গেসা খুলনায় ইতিমধ্যেই রাইড হায়ারিং সার্ভিস চালু করেছে ‘ইজি রাইড’।

ধারাবাহিক সেবার অংশ হিসেবে বিভাগীয় শহর খুলনার জনপ্রিয় রাইড হায়ারিং সার্ভিস ‘ইজি রাইড বাংলাদেশের’ অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার (০৯ মার্চ) বিকালে খুলনা শহরের প্রাণকেন্দ্র মিস্ত্রীপাড়া বাজার সংলগ্ন এলাকায় এ মাসিক মিলন মেলা ও কর্মী সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে এপস ভি‌ত্তিক ইজি বাইক হায়ারিং প্রতিষ্ঠান ‘ই‌জি রাইড’। কর্মী সভা অনুষ্ঠানে সভাপ‌তিত্ব করেন ও কর্মীদের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেন ই‌জি রাইডের প‌রিচালক সৈয়দ মো: আরাফ রায়হান।

ই‌জি রাইডের প‌রিচালক সৈয়দ মো: আরাফ রায়হান বলেন, ইজি বাইক চালকরা প্রতিদিনই জীবিকার তাগিদে রাস্তায় বের হন। তাদের উপার্জনের সাথে যদি বাড়তি আরও উপার্জন হয় তাতে ক্ষতি কি? চালকদের আয় বাড়াতে এবং তাদের জীবনমানের উন্নয়নে সুযোগ তৈরি করেছে ডিজিটাল রাইড হায়ারিং সার্ভিস ই‌জি রাইড। ইজি বাইক রাইডার কমিউনিটির ইনকাম আরও বাড়াতে এবং নিরাপদ ও নির্ভরযোগ্য রাইড হায়ারিং সেবা দেয়ার লক্ষ্যে রাইডার ও গ্রাহকদের জন্য আমরা বদ্ধ পরিকর।

তিনি আরও জানান, ধারাবাহিকভাবে আমরা প্রতি মাসে ইজি রাইডের সাথে যুক্ত হওয়া চালকদের প্রশিক্ষণ প্রদান ও পুরস্কার দিয়ে থাকি। একই সাথে ইজি রাইডের সাথে যুক্ত হওয়া চালকরা বাড়তি উপার্জন ছাড়াও মাসিক ও বার্ষিক সুবিধা পাচ্ছেন।

কর্তৃপক্ষরা জানান, মোবাইল অ্যাপস’র মাধ্যমে ক্লিক করলে নিম্নতম সময়ের মধ্যেই কাঙ্খিত স্থানে পৌঁছে যাবে ইজিবাইক। গুগল প্লে স্টোর থেকে Easy Ride অ্যাপস এবং www.easyridebd.com থেকে ব্যবহার করতে পারবেন তাদের সেবা।

ইজি রাইডের সাথে যুক্ত হওয়া চালক আদম হাওলাদার বলেন, এদের সাথে আসার পর থেকে আমার ইনকাম আগের থেকে বাড়ছে। আর এরা প্রতি মাসে আমাদের চাল ডালসহ সব বাজারও পুরস্কার দেয়। এই সার্ভিস যারা নেয়, তারাই লাভবান হচ্ছে।

মাসিক মিলন মেলা ও কর্মী সভায় উপস্থিত ছিলেন, হেড অফ বিজনেস স্ট্রাটিজি আশিক নেওয়াজ, রিলেশনশিপ ম্যানেজার সর্দার সজিবুল হাসান, কাস্টমার ম্যানেজমেন্ট এক্সিকিউটিভ জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী প্রমুখ।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top