খুলনার ডুমুরিয়ায় সন্তানসহ নারী নিখোঁজ, মিলছে না সন্ধান

89202680_136150061067836_5405213722085949440_n.jpg

খুলনার ডুমুরিয়ায় সন্তানসহ পিয়া বেগম (২৮) নামের নারী নিখোঁজ হয়েছেন। তবে ১৬ দিনেও তাদের কোন সন্ধান মেলেনি।

এ ঘটনায় গত ২২ ফেব্রুয়ারি তার স্বামী আজহারুল ইসলাম (৩৮) বাদী হয়ে ডুমুরিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ওই অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘গত ১৮ ফেব্রুয়ারি সকালে পৌঁনে ৯ টায় তার স্ত্রী পিয়া বেগম একমাত্র কন্যা আস্থা খাতুনকে নিয়ে বাড়ির পাশে স্কুলের উদ্দেশ্যে যায়। পরবর্তীতে তার কন্যা ও স্ত্রী আর বাড়ীতে ফিরে আসেনি। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তাদের কোন সন্ধান পাননি। এক পর্যায়ে তিনি গোপনে জানতে পেরেছেন ডুমুরিয়া বড় বাজার এলাকার শাহাজান শেখের ছেলে সাকিব তার স্ত্রী ও কন্যাকে অসৎ উদ্দেশ্য কোথাও নিয়ে গেছে।’

আজহারুল ইসলাম প্রবর্তনকে বলেন, ‘গত ১৮ তারিখে আমার স্ত্রী ও কন্যা হরিয়ে যারিয়ে যায়। একই দিন থেকে আমাদের বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূরের বাসিন্দা সাকিব ও নিখোঁজ হয়। তাই আমারা সন্দেহ শুরু করি। পরবর্তীতে আমারা জানতে পেরেছি আমার স্ত্রী ও কন্যা কে সাকিবই নিয়ে গেছে। আমাদের সন্দেহ হচ্ছে হয়তো সাকিব মিথ্যা কথা বলে তাদের কোথাও জোরপূর্বক আটকিয়ে রেখেছে। আমি আমার স্ত্রী ও সন্তানের জীবন নিয়ে সঙ্কায় আছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার স্ত্রী অন্যান্ত পর্দাশীল। তিনি কোন ছেলের সাথে অসৎ উদ্দেশ্য কোথাও যেতে পারেন না। তাই আমি তাদের উদ্ধারের জন্য থানায় মামলা করতে চাচ্ছি। তবে পুলিশ আমার কাছে ৩ মার্চ পর্যন্ত সময় ছেয়েছিল। তাই শুধু অভিযোগ দায়ের করতে পেরেছি।’

এব্যাপারে ডুমুরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমিনুল ইসলাম বিপ্লব প্রবর্তনকে বলেন, ‘এবিষয়ে অভিযোগ পাওয়ার পর আমারা উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করেছি। আজ মামলা নেওয়ার সিদ্ধান্ত পেয়েছি। এখন মামলা নিতে পারবো।’

এদিকে, সাকিবের বাবা মোঃ শাহাজান আলী শেখ পাল্টা অভিযোগ তুলে গত রোববার (১ মার্চ) আদালতে মামলা করেছেন। সেখানে আজহারুল ইসলাম ও তার স্ত্রী পিয়া বেগমকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: নিরাপত্তা সতর্কতা!!!