সংশোধিত এডিপি অনুমোদিত হবে আজ

উন্নয়ন ব্যয় কমে হচ্ছে ২ লাখ ১৭ হাজার কোটি টাকা

101846223845Kk-220222-p14-1.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : করোনার প্রকোপ, উন্নয়ন প্রকল্পের ধীরগতিসহ নানা কারণে সংশোধিত উন্নয়ন বাজেটে কমছে বরাদ্দ। চলতি (২০২১-২২) অর্থবছরের মূল উন্নয়ন বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছিল দুই লাখ ৩৬ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা। কাটছাঁট করে শেষ পর্যন্ত সংশোধিত এডিপির আকার দাঁড়াচ্ছে দুই লাখ ১৭ হাজার ১৬৩ কোটি টাকা। অর্থাত্ উন্নয়ন বরাদ্দ কমছে ১৯ হাজার ৬৩০ কোটি টাকা।

শতাংশের হারে ব্যয় কমছে ৮ শতাংশ। সম্প্রতি পরিকল্পনা কমিশনে সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন বরাদ্দ (এডিপি) নিয়ে অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় বিষয়টি চূড়ান্ত হয়। আজ (২ মার্চ) পরিকল্পনা কমিশনে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের সভায় সংশোধিত এডিপি অনুমোদন হতে পারে বলে পরিকল্পনা কমিশন সূত্রে জানা গেছে। পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, ‘গেল বুধবার বর্ধিত সভায় সংশোধিত এডিপি নিয়ে চূড়ান্ত করা হয়েছে।

আগামী ২ মার্চ এনইসি সভায় সংশোধিত এডিপি অনুমোদন দেবেন প্রধানমন্ত্রী। ’চলতি বছরের সংশোধিত এডিপিতে বৈদেশিক অর্থায়ন কমে হচ্ছে ৭০ হাজার ২৫০ কোটি টাকা, যা মূল এডিপিতে ছিল ৮৮ হাজার ২৪ কোটি টাকা। অর্থাত্ অর্থায়ন কমছে ১৭ হাজার ৭৭৪ কোটি টাকা। তবে সংশোধিত এডিপিতে কমছে না দেশীয় অর্থায়ন। মূল এডিপির এক লাখ ৩৭ হাজার ৩০০ কোটি টাকাই থাকছে।

আরও পড়ুন : দুর্দান্ত জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানসিটি

এর সঙ্গে সেক্টরওয়ারি ও উন্নয়ন সহায়তা খাতওয়ারি বরাদ্দ বিভাজন এবং স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার নিজস্ব অর্থায়নের ৯ হাজার ৬৯৩ কোটি টাকা রয়েছে।সর্বোচ্চ বরাদ্দপ্রাপ্ত ১০ খাত : সংশোধিত এডিপিতে সর্বোচ্চ বরাদ্দপ্রাপ্ত ১০টি খাতের মধ্যে প্রথম অবস্থানে রয়েছে পরিবহন ও যোগাযোগ। এই সেক্টরে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৫৫ হাজার ৮২৭ কোটি টাকা। যেখানে এ খাতে মূল এডিপিতে বরাদ্দ ছিল ৬১ হাজার ৬৩১ কোটি টাকা।

অর্থাত্ বরাদ্দ কমছে পাঁচ হাজার ৮০৪ কোটি টাকা। এরপরই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বিদ্যুত্ ও জ্বালানি খাতে। সংশোধিত এডিপিতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৩৯ হাজার ২১৪ কোটি টাকা। এ খাতে কোনো অর্থ কমেনি। গৃহায়ণ ও কমিউনিটি সুবিধাবলি সেক্টরে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ২৩ হাজার ৫৯৫ কোটি টাকা। শিক্ষায় বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ২০ হাজার ৮২৪ কোটি টাকা। স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন সেক্টরে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১৫ হাজার ৫২০ কোটি টাকা।

স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১৩ হাজার ৭৯৭ কোটি টাকা। যেখানে মূল এডিপিতে বরাদ্দ ছিল ১৭ হাজার ৩০৬ কোটি টাকা। অর্থাৎ কমছে তিন হাজার ৫০৯ কোটি টাকা। পরিবেশ, জলবায়ু পরিবর্তন এবং পানিসম্পদ খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৯ হাজার ৮৪ কোটি টাকা। কৃষি খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে সাত হাজার ২৭৯ কোটি টাকা। শিল্প ও অর্থনৈতিকসেবা খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে চার হাজার ৫৩৭ কোটি টাকা এবং শৃঙ্খলা ও সুরক্ষা খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে তিন হাজার ৪৭৮ কোটি টাকা।

সর্বোচ্চ বরাদ্দপ্রাপ্ত ১০ প্রকল্প : সংশোধিত এডিপিতে সর্বোচ্চ বরাদ্দপ্রাপ্ত ১০টি প্রকল্প হচ্ছে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্র। যেখানে এডিপির তুলনায় তিন হাজার ৫৯০ কোটি টাকা ব্যয় কমছে। প্রকল্পটিতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১৪ হাজার ৮৩৬ কোটি টাকা। মাতারবাড়ী দুই হাজার ৬০০ মেগাওয়াট আলট্রা সুপার ক্রিটিকাল কোল পাওয়ার প্রজেক্ট প্রকল্পে সংশোধিত এডিপিতে কোনো পরিবর্তন হয়নি। প্রকল্পটিতে বরাদ্দ রয়েছে ছয় হাজার ১৬২ কোটি টাকা। এরপর তৃতীয় অবস্থানে চতুর্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচি প্রকল্পে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে  ছয় হাজার ১৩৮ কোটি টাকা।

এখানে মূল এডিপির তুলনায় বরাদ্দ বেড়েছে প্রায় এক হাজার ৮৫ কোটি টাকা। পদ্মা সেতু রেল সংযোগ সংশোধিত প্রকল্পটিতে এডিপিতে ছয় হাজার ১৩৭ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। যেখানে মূল এডিপিতে বরাদ্দ ছিল তিন হাজার ৮২৩ কোটি টাকা। এখানে বরাদ্দ বেড়েছে দুই হাজার ৩১৪ কোটি টাকা। এরপর ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট (লাইন-৬) প্রকল্পে সংশোধিত এডিপিতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে চার হাজার ২৩৩ কোটি টাকা। এখানে মূল এডিপিতে বরাদ্দ ছিল চার হাজার ৮০০ কোটি টাকা।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top