চলতি বছর ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অপেক্ষার প্রহর শেষ হচ্ছে

-বছর-ফেসবুক-ব্যবহারকারীদের-অপেক্ষার-প্রহর-শেষ-হচ্ছে.jpg

চলতি বছর ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অপেক্ষার প্রহর শেষ হচ্ছে

ডেস্ক রিপোর্ট, prabartan | প্রকাশিত: ১৮:৫১, ০২-০৩-১৯

সাম্প্রতিক সময়ে বেশকিছু তথ্য ফাঁসের ঘটনায় সমালোচিত ফেসবুক মূলত ব্যবহারকারীদের কাছে আস্থা পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যেই ক্লিয়ার হিস্ট্রি টুলটি যোগ করছে। ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা ঘটনাটি প্রতিষ্ঠানটিকে যথেষ্টই নাড়া দিয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত বছর তারা তৃতীয় পক্ষের অ্যাপ কর্তৃক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহের পদ্ধতিতে বেশকিছু পরিবর্তন আনে।

নতুন টুলটি যোগ করার পর এসব তথ্যের ওপর ফেসবুক ব্যবহারকারীদের নিয়ন্ত্রণ জোরালো হবে। থার্ডপার্টির কোনো অ্যাপ তাদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করছে, কী ধরনের তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা সহজেই তা জানতে পারবেন। তারা চাইলেই এসব তথ্য ফেসবুক থেকে সম্পূর্ণ মুছে ফেলতে পারবেন ।

ফেসবুকে ব্যবহারকারীদের ওয়ালে যে বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হয় তার তথ্য ফেসবুক থেকেই সংগ্রহ করে বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলো। এ বিষয়য়ে সংশ্লিষ্ট বিশ্লেষকরা মনে করছেন, ফেসবুক ওয়ালে যে ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হয় তার সু-নির্দিষ্ট তথ্য ফেসবুক কর্তৃপক্ষ থেকেই দেওয়া হয়। এছাড়াও, ব্যবহারকারীরা থার্ডপার্টি অ্যাপ ব্যবহার করে থাকে। এই অ্যাপসগুলোও আমাদের বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করে থাকে।

ব্যবহারকারীরা ফেসবুক প্রোফাইলে যে সকল তথ্য লিখে রাখেন তা চাইলে পরিবর্তন করে লিখা সম্ভব কিন্তু, থার্ডপার্টি অ্যাপের মাধ্যমে যে তথ্য বেহাত হয় বা ফেসবুক থেকে সংগ্রহ করা হয় তা মুছে ফেলা সম্ভব নয়। এমন ঝামেলা থেকে ব্যবহারকারীদের স্বস্তি দিতে উদ্যোগ নিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। শীঘ্রই তারা এই নতুন প্রাইভেসি টুল যুক্ত করতে যাচ্ছে। ফেসবুকের চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার ডেভিড ওয়েহনার জানিয়েছেন, চলতি বছরের শেষ নাগাদ প্লাটফর্মটির প্রাইভেসি ফিচারে ‘ক্লিয়ার হিস্ট্রি’ নামে একটি টুল যোগ করা হবে, যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা চাইলে ফেসবুক সংগৃহীত বিভিন্ন তথ্য মুছে ফেলতে পারবেন।

দীর্ঘদিন অপেক্ষায় রয়েছেন কাঙ্খিত ব্যবহারকারীরা, কবে ফেসবুক ক্লিয়ার হিস্ট্রি টুলটি যুক্ত করবে। গত বছরের মে মাসে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সর্বপ্রথম এটি চালুর ঘোষণা দেয়। ওই সময় প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ জানিয়েছিলেন, ক্লিয়ার হিস্ট্রি ফিচারের মাধ্যমে অনেকটা ওয়েব ব্রাউজারের মতোই পুরনো তথ্য মুছে ফেলা যাবে। বছরখানেক আগে ঘোষণা দিলেও প্রযুক্তিগত বিভিন্ন বিষয়ের কারণে ফেসবুক এখনো ফিচারটি চালু করতে পারেনি।

চলতি বছর ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অপেক্ষার প্রহর শেষ হচ্ছে বলে নিশ্চিত করেছেন ডেভিড ওয়েহনার। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকোয় অনুষ্ঠিত মরগ্যান স্ট্যানলি টেকনোলজি, মিডিয়া অ্যান্ড টেলিকম কনফারেন্সে তিনি জানান, চলতি বছরের শেষ দিকে টুলটি ফেসবুকের প্রাইভেসি ফিচারে যুক্ত হবে। নতুন ফিচারটি চালু হলে ফেসবুক আর সহজে বিজ্ঞাপনের জন্য ব্যবহারকারীদের টার্গেট করার কাজে থার্ডপার্টি সংগৃহীত তথ্য ব্যবহার করতে পারবে না।

ব্যবহারকারীরা তাদের ব্যক্তিগত বিভিন্ন তথ্য মুছে ফেললে স্বাভাবিকভাবেই বিজ্ঞাপন খাত থেকে ফেসবুকের আয়ে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। ডেভিড ওয়েহনার বিষয়টি স্বীকারও করেছেন। তিনি বলেন, ‘খোলাখুলি বলতে গেলে, ক্লিয়ার হিস্ট্রি টুলটি বিজ্ঞাপনের জন্য ব্যবহারকারীদের টার্গেট করার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধক হিসেবে কাজ করবে।’

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top