দুর্ভাগ্যের শিকার হয়েই শেষ পর্যন্ত সাজঘরে ফিরে যেতে হলো তামিমকে

-শিকার-হয়েই-শেষ-পর্যন্ত-সাজঘরে-ফিরে-যেতে-হলো-তামিমকে.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট, prabartan | প্রকাশিত: ১৮:৪১, ০২-০৩-১৯

টিম সাউদির করা ৩১তম ওভারের দ্বিতীয় বলটা লেগ স্ট্যাম্পের অনেক বাইরে। বাউন্স হয়ে আসা বলটি ছিল তামিমের শরীরের পেছন অংশ বরাবর। তামিম চেয়েছিলেন একটু সরে গিয়ে ডাক করতে। কিন্তু ঠিক ব্যাটে বলে লাগাতে পারলেন না। পড়ে গেলেন। সেই মুহূর্তে ব্যাটটা উঠে গেলো উঁচুতে।

অদ্ভুত! বিচিত্র! এ কেমন আউট হলেন তামিম ইকবাল! টিম সাউদির করা লেগ স্টাম্পের অনেক বাইরের শর্ট বলটা সরে গিয়ে ডাক করতে গিয়ে পড়ে গেলেন। ভারসাম্য হারিয়ে যখন ভূপতিত বাঁহাতি ওপেনার, উঁচিয়ে ধরা ব্যাটে ততক্ষণ বল চুমু খেয়ে চলে গেছে কিউই উইকেটকিপার বিজে ওয়াটলিংয়ের গ্লাভসে। অদ্ভুত আউট হয়ে তামিম ফিরলেন ৭৪ রান করে। আবারও ব্যাটিং বিপর্যয়ে বাংলাদেশ।

যেভাবে আউট হলেন, তামিমের নিজেরই বিশ্বাস হচ্ছিল না! উইকেটে দুই পা ছড়িয়ে বসে পড়া বাংলাদেশ ওপেনারের হতভম্ব, অসহায় মুখখানি বলে দিচ্ছিল, এমন আউট মেনে নেওয়া যায় না! নিউজিল্যান্ড ফাস্ট বোলারদের ক্রমাগত বাউন্সারের সামনে আজ অসংখ্যবার ডাক করতে হয়েছে তামিমকে। এর আগে নিল ওয়াগনারের একটা শর্ট বল ডাক করতে গিয়ে ব্যাটে লেগেছিল। কিন্তু সে দফা রক্ষা পেলেও সাউদির বলে আর বাঁচতে পারলেন না। আউটটা অদ্ভুত হলেও দায় এড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ নেই তামিমের। লেগ স্টাম্পের অনেক বাইরের শর্ট বল ওভাবে সরে গিয়ে ডাক করার আদৌ কোনো দরকার ছিল? তামিম হয়তো চেয়েছিলেন একটু জায়গা করে নিয়ে সাউদির শর্ট বলটা খেলতে। কিন্তু কিউই পেসার ধরে ফেলেছিলেন বিষয়টা। তামিম সরে আসতেই লেগ স্টাম্পের আরও বাইরে করলেন বলটা। ডাকটাও হয়েছিল, কিন্তু ব্যাট ঠিক জায়গায় ছিল না। জায়গায় দাঁড়িয়ে ডাক কিংবা ব্যাট নিচু করে রাখলেই এড়ানো যেত আউটটা।

তামিমের আউট হওয়ার পর হ্যামিল্টন টেস্টে আসলে বাংলাদেশের ইনিংস ব্যবধানে পরাজয় সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেন উইলিয়ামসনের ডাবল সেঞ্চুরিতে ৬ উইকেটে ৭১৫ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করা নিউজিল্যান্ড এখন বাংলাদেশকে নিয়ে খেলছে। দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের শুরুটা যদিও ভালোই হয়েছে। তামিম-সাদমানের ওপেনিং জুটি এনে দিয়েছে ৮৮ রান। প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করা তামিম যেভাবে এগোচ্ছিলেন, দ্বিতীয় ইনিংসেও তাঁর তিন অঙ্ক ছোঁয়া সময়ের ব্যাপার মনে হচ্ছিল। তরুণ ওপেনার সাদমান ইসলামের সঙ্গে তামিমের ওপেনিং জুটি বেশ জমেও উঠেছিল। কিন্তু নিল ওয়াগনারের শর্ট বল পুল করতে গিয়ে ট্রেন্ট বোল্টের হাতে ক্যাচ হয়ে বেশি দূর এগোতে পারলেন না সাদমান। আউট হলেন ৩৭ রানে। দেখতে দেখতে ফিরে গেলেন মুমিনুল হক (৮), মোহাম্মদ মিঠুন (০। অদ্ভুতেড়ে আউট হয়ে তামিমও। কোনো উইকেট না হারিয়ে যেখানে ৮৮ রান উঠেছিল, ৩৮ রানের মধ্যে সেখানে পড়ল ৪ উইকেট।

৪ উইকেটে ১৭৪ রান তুলে দিন শেষ করা বাংলাদেশের ইনিংস ব্যবধানে হার এড়ানো এখন অক্সিজেন ছাড়া এভারেস্ট চূড়ায় ওঠার মতোই কঠিন! সব ছাপিয়ে হ্যামিল্টন টেস্টের তৃতীয় দিন আলোচিত তামিমের অদ্ভুতেড়ে আউটে!

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top