‘যে কোন মূল্যে খুলনা মহানগরী এলাকাকে মশক মুক্ত রাখতে হবে’

dfhfgj.jpg

খুলনা সিটি মেয়র  তালুকদার আব্দুল খালেক কঞ্জারভেন্সী বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, যে কোন মূল্যে খুলনা মহানগরী এলাকাকে মশক মুক্ত রাখতে হবে। মশাবাহিত রোগ বর্তমানে মানুষকে মৃত্যু ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিচ্ছে। নগরবাসীকে মশাবাহিত রোগ থেকে ঝুঁকিমুক্ত রাখতে তিনি সকলকে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেন এবং কারো দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পাওয়া গেলে কঠিন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে উল্লেখ করেন। সিটি মেয়র কেসিসি’র এ কাজে সহযোগিতা করার জন্য নগরবাসীকে ময়লা-আবর্জনা ড্রেনে বা রাস্তায় না ফেলে নির্ধারিত স্থানে ফেলার আহবান জানান।

রবিবার রাতে নগর ভবনের শহীদ আলতাফ মিলনায়তনে কঞ্জারভেন্সী বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে অনুষ্ঠিত সভায় ক্রাশ প্রোগ্রামসহ মশক নিধনে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক সভায় সভাপতির বক্তব্য এ কথা বলেন।

এময়ে জানানো হয়, মশক নিধনকল্পে খুলনা সিটি কর্পোরেশন নগরীতে ক্রাশ প্রোগ্রাম শুরু করেছে। মহানগরী এলাকাকে মশক মুক্ত রাখতে ১ মার্চ থেকে দু’টি জোনে বিভক্ত করে ক্রাশ প্রোগ্রাম পরিচালিত হচ্ছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে নিয়মিত ড্রেন পরিস্কার, মশার ডিম নিধন, প্রতিটি ওয়ার্ডে হ্যান্ড স্প্রে মেশিন ও ফগার মেশিনের ব্যবহার বৃদ্ধি, এস্কেভেটর দিয়ে পেড়িমাটি উত্তোলন, পর্যাপ্ত এসটিএস নির্মাণ, কবরস্থানগুলি পরিচ্ছন্ন রাখা, সড়কসমূহ পরিচ্ছন্ন রাখার লক্ষ্যে পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের ঝুড়ির ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা এবং প্রয়োজনীয় জনবল বৃদ্ধি।

কেসিসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (যুগ্ম সচিব) পলাশ কান্তি বালা, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল আজিজ, কঞ্জারভেন্সী অফিসার মোঃ আনিসুর রহমান, সহকারি কঞ্জারভেন্সী অফিসার মোঃ আব্দুর রকীব, মোঃ জিয়াউর রহমান, মোল্লা মারুফ রশিদ, শেখ হাফিজুর রহমানসহ মাঠপর্যায়ের কর্মচারীগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top