বোলিংয়েও খুব ‍বেশী সুবিধা করতে পারিনি টাইগাররা

-খুব-বেশী-সুবিধা-করতে-পারিনি-টাইগাররা-.jpg

বোলিংয়েও খুব বেশী সুবিধা করতে পারিনি টাইগাররা

ডেস্ক রিপোর্ট, prabartan | প্রকাশিত: ১৫:৪৭, ০১-০৩-১৯

হ্যামিল্টন টেস্টের প্রথম দিনে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় বড় সংগ্রহ পায়নি টাইগাররা। অর্জন শুধু তামিম ইকবালের সেঞ্চুরি। এদিকে প্রথম ইনিংসে নিউজিল্যান্ড ব্যাটিংয়ে নেমে উদ্বোধনী জুটি বাংলাদেশের বিপক্ষে গড়ে রেকর্ড।

ম্যাচে পেসাররা পারেননি বলের গতির ঝড় তুলতে, ব্যর্থ সুইং করাতে। স্পিনাররাও ঠিক নিশানায় বল ফেলতে পারেননি, পারেননি ঘুরাতে। এতে কিউইদের রান পাহাড়ে চাপা পড়তে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সফরকারীদের নির্বিষ বোলিংয়ে রানোৎসব করে টাইগারদের উপহার দিয়েছেন হতাশার দিন।

দ্বিতীয় দিন শেষে জোড়া সেঞ্চুরিতে ৪ উইকেটে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ৪৫১ রান। কিউইদের লিড হয়েছে ২১৭ রানের। ৯৩ রানে অপরাজিত আছেন কেন উইলিয়ামসন।

বিনা উইকেটে ৮৬ রানে দ্বিতীয় দিন শুরু করেছিল নিউজিল্যান্ড। এদিন জুটি দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হতে থাকে। ১৬৩ বলে সেঞ্চুরি তুলে নেন জিত রাভাল। এরপর আগের দিন ক্যাচ দিয়ে বেচেঁ যাওয়া টম ল্যাথামও তিন অংকে পৌঁছান ১৭০ বলে। দুজনের জুটি ভাঙতেই পারছিল না টাইগার বোলাররা। অবশেষে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর বলে ১৩২ রান করা জিত রাভাল খালেদের তালুবন্দি হলে ভাঙে ২৫৪ রানের উদ্বোধনী জুটি।

অন্যপ্রান্তে দেড়শ পার করে এগিয়ে যান ল্যাথাম। এই তারকা ওপেনারকে থামান সৌম্য সরকার। তার বলে মোহাম্মদ মিঠুনের তালুবন্দি হলে থামে ল্যাথামের ২৪৮ বলে ১৬১ রানের ইনিংস। যাতে ছিল ১৭টি চার এবং ৩টি ছক্কার মার। এর সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ৭৯ রানের জুটির অবসান হয়। এই মিডিয়াম পেসারের দ্বিতীয় শিকার হন অভিজ্ঞ রস টেইলর। ৪ রান করা টেইলরকে এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন সৌম্য।

হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামন এবং হেনরি নিকোলাস। ৫৩ রান করা নিকোলাসকে দিনের শেষ বলে বোল্ড করেন মেহেদী মিরাজ।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ২৩৪ রানে প্রথম ইনিংস শেষ হয় বাংলাদেশের। তামিম ইকবালের সেঞ্চুরির পরেও প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ খেলেছে মাত্র ৫৯.২ ওভার।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top